মেইন ম্যেনু

আবারও বিতর্কের জালে যে আউট

আবারও বিতর্ক শুরু হয়েছে একটি আউট কেন্দ্র করে। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) চলতি মৌসুমে জস বাটলারকে মানকাড আউটের ফাঁদে ফেলে তুমুল সমালোচিত হন রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

এবার সমালোচনার জালে ঢুকে পড়েছেন ইংল্যান্ড দলের উইকেটরক্ষক বেন ফোকস।

শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয় ইংল্যান্ড বনাম আয়ারল্যান্ডের মধ্যকার একমাত্র ওয়ানডে ম্যাচ। সে ম্যাচে ৪ উইকেটে জয়লাভ করে ইংল্যান্ড।

খেলার ২৫তম ওভারে আইরিশ ব্যাটসম্যান বালবির্নির আউট কেন্দ্র করেই বইছে সমালোচনার ঝড়।

ওভারের তৃতীয় বলটি ওয়াইড করেন ইংলিশ পেসার জো ডেনলি। বলটি উইকেটের পেছন দিয়ে গ্লাভসবন্দি করেন উইকেটরক্ষক বেন ফোকস। এটুকু পর্যন্ত সবই ঠিক ছিল।

বিতর্কের শুরু যেখান থেকে সে দৃশটি হলো- বল ধরে ব্যাটসম্যানের ভারসাম্য হারিয়ে ক্রিজ থেকে বের হয়ে যাওয়ার অপেক্ষা করছিলেন উইকেটরক্ষক বেন ফোকস।

একপর্যায়ে ক্রিজ থেকে পা শূন্যে ওঠে বালবির্নির। সেই সুযোগে স্টাম্প ভেঙে দেন ফোকস।

ফলে ২৯ রান করা বালবির্নিকে আউট হয়ে মাঠ ছাড়তে হয়।

এ আউটের পরই শুরু হয় বিতর্ক। অনেকেই এর বিরোধিতা করে ইংলিশ উইকেটরক্ষক বেন ফোকসের তুমুল সমালোচনা করছেন।

ক্রিকেটবোদ্ধাদের মতে, এমন আউট স্পিরিট অব ক্রিকেটের জন্য আঘাত। অবশ্য বেন ফোকসের এই চাতুর্যতার প্রশংসাও করেছেন কেউ কেউ।

ম্যাচশেষে সংবাদ সম্মেলনে আইরিশ অধিনায়ক উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড কে এই বিতর্কিত আউট বিষয়ে প্রশ্ন করেন সাংবাদিকরা।

সরাসরি না হলে একটু ঘুরিয়েই আউটটির বিপক্ষে মত দেন উইলিয়াম।

একটু রসিকতা মিশিয়ে আইরিশ অধিনায়ক বলেন, আপনি এটাকে দারুণ উইকেটকিপিং বলতে পারেন। ব্যাটসম্যান কখন ভারসাম্য হারাবেন সে অপেক্ষায় ছিলেন উইকেটরক্ষক। এ জন্য তিন-চার সেকেন্ড অপেক্ষা করেছেন তিনি।

এর পর তিনি বলেন, সবসময় যদি কখন ব্যাটসম্যান ক্রিজের বাইরে চলে যাবেন এই অপেক্ষায় থাকেন উইকেটরক্ষক, তাহলে তো ১৫ ঘণ্টার ওয়ানডে ক্রিকেট ম্যাচ খেলতে হবে।

এরপর তিনি বলেন, বলটি ডেড হওয়াই উচিত ছিল।

তবে কি এই আউট আইপিএলে জস বাটলারের সেই বির্তকিত মানকাডিং আউটের এর মতো?

জবাবে আইরিশ অধিনায়ক জানান, না দুটি প্রেক্ষাপট ভিন্ন। ওটা ছিল বল ছোঁড়ার আগ মুহূর্তের ঘটনা। এ বেলায় তা নয়।

তবে আইরিশ অধিনায়ক না মেলাতেও চাইলেও সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যে অনেকেই এই ঘটনাকে জস বাটলারের সেই মানকাডিং আউটের সঙ্গে তুলনা করেছেন।



মন্তব্য চালু নেই