মেইন ম্যেনু

আল-আকসায় ২ লাখ ৮০ হাজার ফিলিস্তিনির নামাজ

পবিত্র নগরী জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদে একসঙ্গে প্রায় ২ লাখ ৮০ হাজার ফিলিস্তিনি নামাজ আদায় করেছেন। রমজানের শেষ শুক্রবার গতকাল তারা আল-আকসায় জুমআর নামাজ আদায় করেন।

অধিকৃত পশ্চিম তীরের জেরুজালেমে ৪০ বছরের কম বয়সী ফিলিস্তিনিদের প্রবেশে বাধা দিচ্ছে ইসরায়েল। গত টানা চার সপ্তাহ ধরে ফিলিস্তিনিদের সেখানে ইসরায়েলি বাহিনী প্রবেশ করতে দিচ্ছে না।

এমনকি অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকা থেকে কোনো ফিলিস্তিনিকে শুক্রবারের নামাজে অংশ নিতে দেয়া হয়নি। পুরো জেরুজালেমে ইসরায়েলি নিরাপত্তাবাহিনী মোতায়েন করা হয়। শুক্রবারের নামাজ আদায়কে কেন্দ্র করে ওল্ড সিটিতে নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করে ইসরায়েল।

খ্রিস্টান, ইহুদি ও মুসলিম; তিন ধর্মের অনুসারীদের কাছে পবিত্র স্থান হিসেবে পরিচিত জেরুজালেম। ইসলামের তৃতীয় পবিত্র স্থাপনাও জেরুজালেমে রয়েছে। গত কয়েক দশক ধরে ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাতের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে পবিত্র এই নগরী।

মধ্যপ্রাচ্য যুদ্ধের সময় ১৯৬৭ সালে পূর্ব জেরুজালেম দখলে নেয় ইসরায়েল। তবে ইসরায়েলের এই দখলদারিত্ব আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পায়নি।

গত বছরের ৬ ডিসেম্বর পবিত্র এ নগরীকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে ঘোষণা দিয়ে সেখানে মার্কিন দূতাবাস সরিয়ে নেয়ার অঙ্গীকার করেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্পের এ ঘোষণার দেয়ার পর ফিলিস্তিনসহ বিশ্বের অনেক মুসলিম দেশে ব্যাপক প্রতিবাদ শুরু হয়।

ফিলিস্তিনি ও মুসলিম বিশ্বের প্রতিবাদ সত্ত্বেও গত ১৪ মে ইসরায়েলের রাজধানী তেলআবিব থেকে জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাসের আংশিক উদ্বোধন করা হয়। এতে আবারো উত্তপ্ত হয়ে উঠে ফিলিস্তিন। ২০১৭ সালের ডিসেম্বর থেকে এখন পর্যন্ত ইসরায়েলি বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে শতাধিক ফিলিস্তিনির প্রাণহানি ঘটেছে।

সূত্র : মিডল ইস্ট মনিটর, রয়টার্স



মন্তব্য চালু নেই