মেইন ম্যেনু

আশুরার দিনেই বিসর্জন : কলকাতা হাইকোর্টের রায়

১ অক্টোবর আশুরার দিনে প্রতিমা বিসর্জনও দেয়া যাবে বলে জানিয়ে দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। এ ব্যাপারে রাজ্য সরকারের জারি করা নিষেধাজ্ঞার উপরে স্থগিতাদেশ জারি করে অস্থায়ী প্রধান বিচারপতি রাকেশ তিওয়ারি ও বিচারপতি হরিশ টন্ডনের ডিভিশন বেঞ্চ বৃহস্পতিবার বলেছে, দশমী থেকে ৪ অক্টোবর প্রতিদিন রাত ১২টা পর্যন্ত বিসর্জন হবে।

আশুরার দিনে বিসর্জন নিয়ে বরাবরই আপত্তি জানিয়ে আসছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। তার বক্তব্য ছিল, আশুরার দিন বিসর্জন হবে না। সব ধর্মের মানুষের কথা ভেবে, সব দিকে শান্তি বজায় রাখতেই এ সিদ্ধান্ত। বিসর্জন ও মহরম নির্বিঘ্নে হোক।

তবে রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল (এজি) কিশোর দত্তকে বৃহস্পতিবার আদালত নির্দেশ দিয়েছে, বিভিন্ন পুলিশ কমিশনারেট ও বিভিন্ন জেলার প্রশাসনকে বিসর্জন সংক্রান্ত নির্দেশ জানিয়ে দিতে হবে। বিসর্জন ও ধর্মীয় মিছিল কোন রাস্তা দিয়ে যাবে— তা নির্ধারণ ও নিয়ন্ত্রণ করবে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন। বিসর্জনের শোভাযাত্রা ও ধর্মীয় মিছিলে অংশগ্রহণকারীদের সংযত আচরণ করার নির্দেশও দিয়েছে আদালত।

এরআগে মহররমের দিনে বিসর্জন বন্ধ থাকবে বলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল রাজ্য যে। এরপর ওই নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে মামলা হয়।
আবেদনকারীদের আইনজীবী স্মরজিৎ রায়চৌধুরী, পার্থ ঘোষেরা দাবি করেন, এই নিষেধাজ্ঞা ধর্মাচরণ নিয়ে সংবিধানের মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী।

তবে প্রশাসনের দাবি ছিল খেয়ালখুশি মতো এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়নি।

এদিকে নিষেধাজ্ঞার কারণে রাজ্যে সমালোচিতও হতে হয়েছিল মমতাকে। তখন তিনি বলেছিলেন, আমি দুর্গাপূজার উদ্বোধন করলে বা গণেশপূজায় অংশ নিলে তখন তাকে প্রশ্রয় দেয়া বলা হয় না কেন? যত সমস্যা ঈদ বা মহররম নিয়ে।

গোটা বিষয়টাকে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র বলেও আখ্যায়িত করেন তিনি।






মন্তব্য চালু নেই