মেইন ম্যেনু

আশুলিয়ায় ঈদের আগে শ্রমিক অসন্তোষের আশঙ্কা

টিপু সুলতান (রবিন), নিজস্ব প্রতিবেদক : সাভারের আশুলিয়ায় ঈদকে সামনে রেখে বকেয়া বেতনের দাবীতে একটি তৈরী পোশাক কারখানার প্রায় তিন শতাধীক শ্রমিক অনশন পালন করছে। সোমবার বিকেল সাড়ে চারটা থেকে আশুলিয়ার জামগড়া এলাকায় অবস্থিত ঈশা টেক্সটাইল (সোয়েটার) লিঃ নামক তৈরী পোশাক কারখানায় এই অনশন কর্মসূচি পালন করছে শ্রমিকরা।

অনশনরত শ্রমিক মোঃ হাসেম আওয়ার নিউজ বিডিকে জানায়, গত তিন মাস যাবৎ আমাদের তিন’শ শ্রমিকের বেতন দিচ্ছে না কারখানা কতৃপক্ষ,সর্বশেষ চলতি মাসে তিন বার বেতন দেওয়ার তারিখ নির্ধারণ করেও বেতন দেননি মালিক পক্ষ,আজ (সামবার) দুপুরে বেতন দিবে বলে মালিক পক্ষ কেও অফিসে আসেননি। এমন অবস্থায় আমরা শ্রমিকরা বাধ্য হয়ে অনশন করছি।

মনোয়ারা বেগম নামের আরও এক শ্রমিক অভিযোগ করে বলেন ঈদের আর কয়েকটা দিন বাকি অথচ আমাদের বেতন দিবে কি দিবে না তার কোন নিশ্চয়তা নেই, আমরা ঈদে বাড়ি যেতে পারব কি না তাও জানি না, আমরা শান্তি পূর্ণ ভাবে আন্দোলন করছি আর মালিক পক্ষ এলাকার স্থানীয় লোক দিয়ে আমাদের ভয় ভীতি দেখাচ্ছে আমরা কি করব এখন?

এঘটনায় যে কোন অপ্রিতিকর ঘটনা এড়াতে কারখানাটির সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

এবিষয়ে জানতে চাইলে ইন্ডাস্টিয়াল পুলিশ ১ এর পুলিশ সুপার সানা শামীনুর রহমান শামীম, আওয়ার নিউজ বিডিকে জানায়, ঈদ উল আযহাকে কেন্দ্র করে আশুলিয়ার অর্ধেক কারখানা গুলোতে বেতন ভাতা পরিশোধ করা হয়েছে, তবে পাঁচ’শতাধীক কারখানায় এখনো বেতন ভাতা পরিশোধ হয়নি এতে করে যে কোন মূহূর্তে শ্রমিক আন্দোলনের ঘটনা ঘটার অশঙ্কা করছেন তিনি। তবে কারখানা কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন বলেও জানান তিনি। যে কোন অপ্রিতিকর ঘটনা এড়াতে শিল্প পুলিশ প্রস্তুত বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

অনশনের ব্যপারে জানতে বাংলাদেশ পোশাক শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন ফেডারেশন এর কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি তুহিন চৌধুরী আওয়ার নিউজ বিডিকে বলেন, কিছু দিন পরেই সর্ব নিম্ন মুজুরী ঘোষনা করবে সরকার। এই মুজুরী ঘোষনা কে বিলম্বিত ও অন্যয্য মুজুরী ঘোষনা করার লক্ষ্যে যে সকল কারখানা বিভিন্ন ছোট, ছোট কারখানায় সাব কন্ট্রাক্টে কাজ দিয়ে থাকে সে সকল কারখানার কাজের টাকা আটকে দিয়ে, ও কাজ না দিয়ে শ্রমিকদের আন্দোলনে নামানোর পায়তারা করছে। সাভার অঞ্চলের প্রায় চার ভাগের এক ভাগ করাখানা বেতন পরিশোধে অসমর্থ, এই ঈদে বিপুল সংক্ষক শ্রমিকের বাড়ি ফেরা প্রায় অনিশ্চিত।

তিনি আরও বলেন আমরা শ্রমিকদের আশ্বস্ত করেছি কুচক্রি মহলের কোন প্রকার উস্কানীতে আমরা পা বাড়াব না।
আমরা শান্তী পূর্ন আন্দোলনের মাধ্যমে আমাদের দাবী আদায়ের চেষ্টা করব।

তিনি সরকার ও বড়,বড় কারখানার মালিকদের কাছে অাবেদন করে যানান অবিলম্বে ছোট, ছোট কারখানা গুলোর শ্রমিকদের দিকে তাকিয়ে তাদের বকেয়া বেতন মেটাতে ব্যবস্থা গ্রহন করেন।

অন্যদিকে ঈশা টেক্সটাইল (সোয়েটার) লিঃ এর শ্রমিকরা বকেয়া বেতন পরিশোধ না হওয়া পর্যন্ত অনশন চালিয়ে যাবার ঘোষনা দেন।



মন্তব্য চালু নেই