মেইন ম্যেনু

একটি অভিশপ্ত ফোন নম্বর ও তিন ব্যক্তির মৃত্যু

হেডলাইন দেখে নিশ্চয় অবাক হয়েছেন। একটি ফোন নম্বরও মৃত্যু ডেকে আনতে পারে মানুষের! এতদিন আমরা ভুতুড়ে পুতুলের কথা শুনেছি। কিন্তু ফোন নম্বরও যে ভুতুড়ে হতে পারে সেটি কি আপনি জানেন?

একটি ফোন নম্বর তিন তিনটে মৃত্যুর কারণ। দশ বছরে তিনটি জলজ্যান্ত মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। ঘটনাটি বুলগেরিয়ার। এই বিশেষ নাম্বারটি হল ০৮৮৮-৮৮৮-৮৮৮। পরপর তিন তিনটি মৃত্যুর পরই বন্ধ করে দেওয়া হয় এই নম্বরটি। এই নম্বরটি আপাতত অভিশপ্ত নম্বরের তকমা পেয়েছে।

ঘটনাটি হল এই নম্বরটির প্রথম ব্যবহারকারী ছিলেন ভ্লাদিমির গ্রাসহনভ। তিনি মোবিটেল সংস্থার সিইও ছিলেন। ২০০১ সালে ক্যান্সারে মৃত্যু হয় তার। ভ্লাদিমির মৃত্যুর পিছনে যে তার শত্রুপক্ষের হাত রয়েছে সেটি সেই সময় মনে করা হয়েছিল।

পরবর্তী ঘটনাটি ঘটে ২০০৩ সালে। কনস্টানতিন দিমিট্রোভ বুলগেরিয়ার মাফিয়া ছিলেন। নেদারল্যান্দ ট্রিপে যাওয়ার সময় তার শত্রুপক্ষের গুলিতে মৃত্যু হয় তার। দিমিট্রোভের মৃত্যুর সময় তার সঙ্গে ছিল এই ফোন নম্বরটি। তার কাছে সেই মুহূর্তে প্রায় ৫০০ ইউরোর মাদকদ্রব্য ছিল বলে জানা গিয়েছিল।

২০০৫ সালে রিয়েল এস্টেট এজেন্ট কনস্তাতিন ডিশ্লিএভ এই নম্বরের শিকার হয়। পেশা হিসেবে সেও একজন স্মাগলার ছিল বলে জানা গিয়েছে। ১৩০ ইউরো মিলিয়ন মাদক পুলিশ আটক করে এই ঘটনার পর ডিশ্লিএভের কাছ থেকে। তার কাছেও সেই মুহূর্তে ওই নম্বরটিই ছিল বলে জানা গিয়েছে।

এই তিনজনের কাছেই সেই মুহূর্তে এই নম্বরটিই ছিল। তবে, এটি কি শুধুমাত্র কাকতালীয়? নাকি এদের মৃত্যুর পিছনে এই নম্বরটির ভূমিকা রয়েছে? সেটি আজও রহস্য। এখনো জানা যায়নি।






মন্তব্য চালু নেই