মেইন ম্যেনু

এবার দিল্লি-লাহোর বাস সেবা বন্ধ করল পাকিস্তান

জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল ও রাজ্যটিকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার পরেই অবনতি ঘটে পাক-ভারত সম্পর্কের। সীমান্ত পারাপারকারী দুটি ট্রেন পরিষেবা বন্ধের পর এবার দিল্লি-লাহোর বাস পরিষেবা ‘দোস্তি’ও বন্ধ করার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে ইসলামাবাদ। খবর এনডিটিভি’র।

১৯৯৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে শুরু হয়েছিল দিল্লি-লাহোর ‘দোস্তি’ বাস পরিষেবা। কিন্তু ২০০১ সালের সংসদ হামলার পরে তা স্থগিত হয়ে যায়। পরে ২০০৩-এর জুলাইয়ে পুনরায় চালু হয় ওই পরিষেবা।

গত বুধবার পাকিস্তানের জাতীয় সুরক্ষা কমিটির (এনএসসি) বৈঠকে গৃহীত সিদ্ধান্তের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে টুইট বার্তায় জানিয়েছেন পাকিস্তানের যোগাযোগ ও ডাক পরিষেবা মন্ত্রী মুরাদ সঈদ।

লাহোর-দিল্লি বাস পরিষেবা দিল্লি গেটের নিকটবর্তী আম্বেদকর স্টেডিয়াম টার্মিনাল থেকে চলাচল করে। ডিটিসির তরফ থেকে এই বাস পরিষেবা প্রতি সোম, বুধ ও শুক্রবার এবং পাকিস্তান ট্যুরিজম ডেভলপমেন্ট করপোরেশন (পিটিডিসি) তরফ থেকে এই বাস পরিষেবা প্রতি মঙ্গল, বৃহস্পতি ও শনিবার দিল্লি থেকে লাহোর পর্যন্ত চলাচল করে।

আবার ফেরার সময় পাকিস্তান থেকে ডিটিসির বাসগুলো প্রতি মঙ্গল, বৃহস্পতি এবং শনিবার লাহোর ছেড়ে ভারতের দিকে রওনা হয়, আবার পিটিটিসির বাসগুলো প্রতি সোম, বুধ এবং শুক্রবারে দিল্লি থেকে পাকিস্তানে ফিরে যায়।

এর আগে, পাকিস্তানের রেলমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমদ শুক্রবার ঘোষণা করেন যে পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে রেলপথে সংযোগ স্থাপনকারী থর এক্সপ্রেসের চলাচল স্থগিত করছে। ওই ট্রেনটি দু’দেশের সঙ্গে রাজস্থান সীমান্তের মাধ্যমে সংযোগ স্থাপন করত। এর আগে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক হ্রাস করার বিষয়ে ইসলামাবাদের একতরফা সিদ্ধান্তের পর বন্ধ করে দেওয়া হয় সমঝোতা এক্সপ্রেসও।

প্রসঙ্গত, জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহারের জন্য নয়াদিল্লির পদক্ষেপকে ‘অবৈধ’ আখ্যা দিয়ে ভারতের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক হ্রাস করার সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান। বুধবারই ভারতীয় হাই কমিশনার অজয় বিসারিয়াকে ওই দেশ থেকে বহিষ্কার করে তারা। ওই সিদ্ধান্তের পরেই পাকিস্তানের দুটি ট্রেনের পরিষেবা ও দোস্তি বাস পরিষেবা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেয় ইমরান খানের দেশ।



মন্তব্য চালু নেই