মেইন ম্যেনু

কলকাতার পর এবার বাংলাদেশ মাতাবে ‘ভাইজান’

গত ঈদে কলকাতায় মুক্তি পেয়েছে শাকিব খান অভিনীত ‘ভাইজান এলো রে’। কলকাতা মাতিয়ে এবার বাংলাদেশে ২০ জুলাই মুক্তি পাচ্ছে আলোচিত এই সিনেমাটি। সাফটা চুক্তিতে বাংলাদেশে মুক্তি পেতে যাচ্ছে ওপার বাংলার এসকে মুভিজ প্রযোজিত এই ছবিটি। তার আগে প্রয়োজন বাংলাদেশের চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের অনুমতি। সেজন্য গতকাল (বুধবার) ছবিটি সেন্সরে জমা দেয়া হয়েছে।

আমদানি করে বাংলাদেশে ‘ভাইজান এলো রে’ মুক্তি দিচ্ছে এন ইউ আহমেদ ট্রেডার্স। প্রতিষ্ঠানটির এক কর্মকর্তা ‘ভাইজান’ সেন্সরে জমা পড়ার খবর নিশ্চিত করেছেন। জানিয়েছেন সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০ জুলাই বাংলাদেশে সিনেমাটি মুক্তি পাবে।

অন্যদিকে সেন্সর বোর্ডের সদস্য সচিব আলী সরকারও ছবিটি সেন্সরে জমা পড়ার খবর নিশ্চিত করে বলেন, গতকাল ‘ভাইজান এলো রে’ সেন্সরে জমা দিয়েছে। আজ কাগজপত্র চেক করে দেখেছি সবকিছু ঠিক আছে। আগামী সপ্তাহের যেকোনো ছবিটি সেন্সরে প্রদর্শিত হবে।

‘ভাইজান এলো রে’ কলকাতার ছবি হলেও এর প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের শীর্ষ নায়ক শাকিব খান। যেখানে তিনি দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করেছেন। গেল ঈদে পশ্চিমবঙ্গে ছবিটি মুক্তি পায়। বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, পশ্চিমবঙ্গ থেকে ভাইজান এলো রে ছবিটি ভালো ব্যবসা করেছে।

শুধু তাই নয়, ছবিটি মুক্তির পর ওপার বাংলার কিংবদন্তি অভিনেতা রঞ্জিত মল্লিক ‘ভাইজান এলো রে’ ছবিটি দেখে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে নিজেই টুইট করেছিলেন। সেখানে কলকাতার শক্তিমান এই অভিনেতা শাকিব খানকে উদ্দেশ্য করে বলেছিলেন, ‘বাংলাদেশের নায়ক শাকিব খানের অভিনয় দেখে আমি মুগ্ধ। শুধু অভিনয় নয়, নাচ এবং ফাইটিং এও তার জুড়ি নেই। আমি তার ভাইজান এলো রে ছবি এবং আগামীর জন্য সফলতা কামনা করছি।’

শাকিব খান ছাড়াও বাংলাদেশ থেকে ‘ভাইজান এলো রে’ ছবিতে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের দীপা খন্দকার, মনিরা মিঠু, শাহেদ আলী। এছাড়াও কলকাতার জনপ্রিয় নায়িকা শ্রাবন্তী, পায়েল, শান্তিলাল, রজতাভ দত্ত প্রমুখ অভিনয় করেছেন।



মন্তব্য চালু নেই