মেইন ম্যেনু

কুমিল্লা মুরাদনগরে মাজারের খেলাফত নিয়ে সংঘর্ষে আহত ২০

মোঃ শামিম খাঁন, কুমিল্লা : কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার পীরকাশিমপুর গ্রামে পীরকাশিমপুর দরবার শরীফের আধিপত্য বিস্তার ও খেলাফতকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় ২০ জন আহত হয়েছে। এ ঘটনা খবর পেয়ে বাঙ্গরা বাজার থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। জানা যায়, কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরাবাজার থানার পীরকাশিমপুর গ্রামে পীরকাশিমপুর দরবার শরীফ (বড় হুজুরের) দরবারের, দরবারের খেলাফত ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে, একই গ্রামের মরহুম হযরত খাজা শাহ মোহাম্মদ সামসুজ্জামান চিশতীর পুত্র মো: জহিরুল আলম চিশতী (৬৫), শাহ আলশ চিশতী (৬২), নজরুল আলম চিশতী (৬০) সহ একটি সঙ্গবদ্ধ গ্রæপ সুপরিকল্পিতি ভাবে দরবারের খেলাফত ও আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে সকালে হামলা চালায়। হামলায় বর্তমান গদ্দানিশি পীর কামরুজ্জামান চিশতী এর মেয়ে তৈয়বা জামান (৩২), তাহেরা জামান (৩০), তামজিদা জামান (৩০) সহ ১৫ জন আহত হয়। খবর পেয়ে বাঙ্গরা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। আহত তাহেরা জামান জানান, আমার বাবা বর্তমান গদ্দানিশি পীর হযরত খাজা শাহ মোহাম্মদ কামরুজ্জামান চিশতী বিগত ৫৫ বছর পূর্বে আমার দাদা তৎকালিক পীর মরহুম খাজা সামসুজ্জামান চিশতির কাছ থেকে খেলাফত পেয়ে এ যাবৎ দরবারের কাজ পরিচালনা করে আসছিলেন। কিন্তু এক বছর যাবৎ আমার বাবা অসুস্থ হবার পর থেকে আমার চাচারা মো: জহিরুল আলম চিশতী (৬৫), শাহ আলম চিশতী (৬২), নজরুল আলম চিশতী (৬০) একটি চক্রকে সঙ্গে নিয়ে দরবারের খেলাফত দাবি করে দরবারে সমস্ত স¤পদ দখলের লক্ষ্যে বিভিন্ন সময় কৌশলে ষড়যন্ত্র করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় সকালে দরবারের বাৎসরিক ওরশ চলাকালে আমাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় আমরা আহত হই। এ হামলার কারণে দরবারের পরিবেশ বেশ উদ্ধেগ-উৎকন্ঠা চলছে। দরবারের ভক্তবর্গ অনেকেই ভয়-ভীতিতে আছেন। তানজিদা জামান জানান, আমার চাচারা বর্তমানে আমাদেরকে বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে জিম্মি করে রেখেছে। জহিরুল আলম চিশতী জানান, উক্ত অভিযোগের বিষয়টি সত্য নয়। পারিবারিক ভাবে কিছু মতবিরোধ সৃষ্টি হয়েছে মাত্র। বাঙ্গরা বাজার থানার পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত মো: নাজমুল হুদা জানান, খবর পেয়ে আমরা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।



মন্তব্য চালু নেই