মেইন ম্যেনু

কোলরেক্টাল ক্যানসারের চিকিৎসা কী

উচ্চ চর্বিযুক্ত খাবার, মদ্যপান, ধূমপান ইত্যাদি কোলরেক্টাল ক্যানসারের কারণ। কোলরেক্টাল ক্যানসারকে সাধারণত তিনভাবে চিকিৎসা করা হয়।

কোলরেক্টাল ক্যানসারের চিকিৎসার বিষয়ে এনটিভির নিয়মিত আয়োজন স্বাস্থ্য প্রতিদিন অনুষ্ঠানের ২৮৯৫তম পর্বে কথা বলেছেন ডা. আরমান রেজা চৌধুরী। বর্তমানে তিনি ডেল্টা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অনকোলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন : কোলরেক্টাল ক্যানসারের চিকিৎসা কী।

উত্তর : যেকোনো ক্যানসারের চিকিৎসার জন্য মূলত অস্ত্রোপচার, রেডিওথেরাপি ও কেমোথেরাপি- এই তিনটি দেওয়া হয়। এই তিনটির মাধ্যমে আসলে চিকিৎসা করতে হবে।

প্রশ্ন : চিকিৎসা কী দেবেন সেটি নির্ভর করছে কিসের ওপর?

উত্তর : এটি আসলে নির্ভর করে রোগটি কোন পর্যায়ে রয়েছে এর ওপর। সাধারণত আমরা জানি ক্যানসারের চারটি পর্যায় থাকে। পর্যায় এক , পর্যায় দুই, পর্যায় তিন, পর্যায় চার। পর্যায় এক বা পর্যায় দুইয়ে সাধারণত সার্জারি, রেডিওথেরাপি এই চিকিৎসাগুলো হয়। পর্যায় তিনেও রেডিয়েশন দেওয়া হয়। পর্যায় চারেও রেডিয়েশন দেওয়া হয়। সব ক্ষেত্রেই দেওয়া হয়। তবে একেক সময় চিকিৎসার ধরনটা থাকে একেক রকম। প্রাথমিক অবস্থায় যদি রোগটি থাকে, তাহলে চিকিৎসার উদ্দেশ্য থাকে কিউরেটিভ। সারিয়ে ফেলার জন্য। পর্যায় তিনেও আমরা চেষ্টা করি সারিয়ে ফেলার জন্য।

তবে পর্যায় ফোরকে ক্যানসারের শেষ পর্যায় বলা হয়। সেই পর্যায়ে গেলে আর চিকিৎসা দিয়ে সারিয়ে ফেলব এমন অবস্থা থাকে না। আমাদের চিকিৎসার উদ্দেশ্য থাকে চিকিৎসার মাধ্যমে যতটুকু সম্ভব কষ্ট কমানোর। তাঁর যে সমস্যাগুলো রয়েছে, সেগুলো কমিয়ে এনে যতটুকু সম্ভব ভালো রাখার চেষ্টা করি। এই চিকিৎসার কারণে যদি রোগগুলো কমে আসে, তাহলে তার আয়ুষ্কাল বাড়বে। এই চেষ্টাগুলো আমরা করি। তবে পুরোপুরি সারিয়ে তোলা তখন অসম্ভব হয়ে পড়ে। আসলে আমরা চাই না অতদূর পর্যন্ত আমাদের রোগীরা যাক। সূত্র : এনটিভি



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই