মেইন ম্যেনু

ক্ষমা করো জান্নাতি || আবদুল হাই ইদ্রিছী

ক্ষমা করো জান্নাতি
-আবদুল হাই ইদ্রিছী


কি নামে ডেকে তোমার কাছে চাইবো ক্ষমা
তুমি যে হয়ে গেছো বাংলার গান্ধা পঁচা
রাজনীতির ঝকঝকে উপমা।
লজ্জিত জাতি, নিয়েছো তুমি খ্যাতি
কী মুখে তোমার কাছে চাইবো গো ক্ষমা।

তোমায় প্রসবকালীন বুক ফাটা যন্ত্রণা মুছে
তোমার নামটি রাখার আগে আগেই
পরিবহন শ্রমিক ধর্মঘট নামক বর্বরতা
হতভাগী মায়ের কোলটা খালি করে
তোমাকে চিরতরে পাঠিয়ে দিলো জান্নাতে,
তাই তোমার নামটি রেখে দিলাম জান্নাতি।
আমরা হতভাগা জাতি, ক্ষমা করো জান্নতি।

জান্নাতি, তোমার মায়ের গগন বিদীর্ণ চিৎকারে
যখন আকাশ বাতাস হচ্ছে ভারি, তখন আমরা
শুধু র্নিলজ্জ চোখে তাকিয়ে দেখেছি!
কী করবো জান্নাতি?
হাতে যে হাতকড়া, পায়েতে শিকল বাঁধা
দেখতে হবে তাকিয়ে শুধু যাবে না গো কাঁদা!
আমরা হতভাগা জাতি, ক্ষমা করো জান্নতি।

জান্নাতি, তোমার মা সায়রা বেগমের আর্তচিৎকারে
আমার কলজে ফেটে চৌচির হয়েছে
কিন্তু আমি কাঁদতে পারিনি!
তোমার বাবা কুটন মিয়ার আহাজারিতে
আমার হৃদয়টা দুমরে মুচড়ে তছনছ হয়েছে
কিন্তু বুকে জড়িয়ে একটু শান্তনাও দিতে পারিনি।
আমরা যে হতভাগা জাতি, ক্ষমা করো জান্নাতি।

জান্নাতি, তোমার সাত দিনের পবিত্র জীবন
আর তোমার মায়ের চোখের পানিতে
উর্বর হোক বাংলার সবুজ জমিন।
স্বাধীনতা রক্ষিত হোক,
হুতুম পেঁচা খতম হোক।
আমরা হতভাগা জাতি, ক্ষমা করো জান্নতি।

২৮ অক্টোবর ২০১৮ খ্রি. পরিবহন শ্রমিক ধর্মঘটের বর্বরতায় মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় নিহত ৭ দিনের শিশু কন্যাটিকে নিয়ে লেখা কবিতা।


 



মন্তব্য চালু নেই