মেইন ম্যেনু

গাড়ি, বিমান, হেলিকপ্টার কী নেই বিশ্বের দামি ফুটবলার নেইমারের!

বিশ্বের দামি ফুটবলার নেইমার। বেতন-ভাতা পাওয়ার ক্ষেত্রেও শীর্ষে এখন ব্রাজিল তারকা। সপ্তাহে ৬ লাখ ডলার কিংবা তার চেয়ে বেশি আয় করলেই তো আর হয় না, সেটি খরচ করার উপায়ও তাঁকে ভেবে বের করতে হয়! এদিক দিয়ে নেইমার অবশ্য মেসি-রোনালদোর চেয়ে অনেক অনেক এগিয়ে। জীবনকে উপভোগ করার সব পথই খুঁজে নিয়েছেন ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার।দেখে নিন, পিএসজি তারকার সংগ্রহশালার বস্তুগুলো। নেইমারের অতি প্রিয় একটি সংগ্রহ ফেরারি ৪৫৮ স্পাইডার। এই মডেলের গাড়ি নিজের অধিকারে নিতে ২ লাখ পাউন্ড খরচ করতে হয়েছে নেইমারকে।

ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ২০০ মাইল গতিতে ছুটতে পারা এবং মাত্র ৩ সেকেন্ডে ৬০ মাইল গতি তুলতে পারা একটি গাড়ির জন্য এ আর এমন কী!শুধু একটি ফেরারি দিয়ে কী নেইমারের তৃপ্তি আসে? ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের সংগ্রহে আছে ফেরারি ক্যালিফোর্নিয়া টি। এ মডেলও ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ২০০ মাইল গতি তুলতে পারে। তবে এর দাম ৪৫৮ স্পাইডারের তুলনায় বেশ কম, ‘মাত্র’ ১ লাখ ৫৫ হাজার পাউন্ডেই মিলে এর দেখা।

নেইমারের গ্যারেজে দেখা মেলে মার্সিডিজ এএমজি জিটি রোডস্টার ১০০-এরও। ১ লাখ ৪০ হাজার পাউন্ডের এ গাড়ি ছুটতে পারে ১৯৬ মাইল গতিতে।

এ ছাড়া নেইমারের বাহনের তালিকায় আছে পোরশে প্যানামেরা, ফোক্‌সওয়াগন টরেগ ভি এইট, অডি কিউ ফাইভ, অডি আরএস সেভেন স্পোর্টব্যাক ও অডি টিটির মতো দুর্দান্ত সব গাড়ি।

শুধু স্থলেই রাজত্ব করে শান্তি পাচ্ছেন না নেইমার, জল ও বায়ু দখলের ইচ্ছে নেইমারের। বার্সেলোনায় যোগ দেওয়ার পর থেকেই তাঁর ব্যক্তিগত বিমানের সঙ্গে পরিচিত সবাই। পিএসজিতে যোগ দেওয়ার পর দ্বিতীয় আরেকটি জেট কিনেছেন বলে শোনা যাচ্ছে। আর সুযোগ পেলেই হেলিকপ্টারে চড়ার ছবিও দেখিয়ে দেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। আর ছুটিছাটা পেলেই ছোটেন ভূমধ্যসাগরে। এক দল বন্ধুবান্ধব নিয়ে আয়েশ করেন নিজের প্রমোদতরিতে।






মন্তব্য চালু নেই