মেইন ম্যেনু

গুজব যেভাবে কেড়ে নিলো তাসলিমার প্রাণ (ভিডিও)

রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় ছেলেধরা গুজব কেড়ে নিলো তাসলিমা বেগম রানু (৪০) নামে এক নারীর প্রাণ। উশৃঙ্খল কিছু যুবক পিটিয়ে হত্যা করলো তাকে। শনিবার সকালে এ ঘটনার পর এদিন রাতেই নিহতের বোনের ছেলে নাসির উদ্দিন বাদী হয়ে বাড্ডা থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। মামলায় অজ্ঞাত ৪ থেকে ৫শ জনকে আসামি করা হয়েছে।

শনিবার সকালে এই ঘটনার পর নিহত নারীর পরিচয় মিলেছে। তার নাম তাসলিমা বেগম রেনু (৪০)। তিনি আসলে ছেলেধরা ছিলেন না। মেয়েকে ভর্তি করানোর জন্য খোঁজ নিতে বাড্ডার ওই প্রাইমারি স্কুলে গিয়েছিলেন।

জানা গেছে, মহাখালীর ৩৩/৩ জিপি ওর্য়ালেস গেটের একটি ভাড়া বাসায় দুই ছেলে-মেয়েকে নিয়ে বসবাস করতেন তাসলিমা বেগম রেনু। তার স্বামীর নাম তসলিম হোসেন। গত দুই বছর আগে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। এর পর থেকেই মহাখালীতে বসবাস করতে থাকেন রেনু।

ঘটনার পর ঢামেকে তাসলিমার লাশ নিয়ে যাওয়া হলে সনাক্ত করেন তার ভাগনে সৈয়দ নাসির উদ্দিন টিটু।

তিনি জানান, সন্তানকে ভর্তি করাবেন বলে উত্তর বাড্ডার ওই স্কুলে গিয়েছিলেন তার ছোট খালা। সেখানে তাকে পিটিয়ে হত্যা করে এলাকার লোকজন। পুলিশ প্রশাসন থাকতে কীভাবে একজন নিরপরাধ মানুষকে খুন হতে হয়? এ ঘটনার ন্যায্য বিচার দাবি করেন তিনি।

বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়াসিন গাজী বলেন, নিহতের ভাগনে তার লাশ সনাক্ত করেছেন।



মন্তব্য চালু নেই