মেইন ম্যেনু

গ্যাসের সমস্যার নিরাময়ে অব্যর্থ কয়েকটি পরামর্শ

গ্যাসের সমস্যায় কখনও ভোগেন না, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুস্কর। আসলে ছুটে চলা ব্যস্ত জীবন আর অগোছালো লাইফস্টাইলের কবলে পড়েছে মানুষ।

আর তারই ফলশ্রুতি এই সব সমস্যা। কিন্তু একটু সতর্ক থাকলেই গ্যাসের সমস্যাকে জীবন থেকে দূরে সরিয়ে রাখা যায়। গ্যাসের সমস্যার সমাধানে রইল অব্যর্থ কয়েকটি পরামর্শ-

১। খাবার ভাল করে চিবিয়ে খান। শুনতে যতই অবাক লাগুক, অনেক সময়ই আমরা ভাল করে চিবিয়ে খাই না। আর তার থেকে শুরু হয় বড় সমস্যা। তাই খাওয়ার সময় ধীরে ধীরে খান। ভাল করে চিবিয়ে খান। খাওযার সময়ে ফোনে কথা বলা বা টেলভিশন দেখা থেকে বিরত থাকুন।

২। একবারে বেশি না খেয়ে বারে বারে অল্প করে খান। সহজে হজম হবে। গ্যাসের সমস্যা হবে না।

৩। যদি দেখেন পেটে গ্যাস জমে রয়েছে, তা হলে অবশ্যই খানিকটা হেঁটে আসুন। দেখবেন গ্যাস বেরিয়ে গিয়ে অনেকটা স্বস্তি বোধ করবেন।

৪। কার্বনেটেড ড্রিঙ্ক খাওয়া একেবারেই ছেড়ে দিন। এই ধরনের পানীয়তে কার্বন ডাই অক্সাইড থাকার ফলে বুদবুদ সৃষ্টি হয়ে গ্যাস তৈরি করতে পারে।

৫। লক্ষ করে দেখুন কোনও বিশেষ খাবার খাওয়ার ফলে গ্যাস হচ্ছে কি না। যদি কোনও খাবারকে আলাদা করে সনাক্ত করতে পারেন, তা হলে সেই খাবারকে বর্জন করে দেখুন।

৬। পেটে গ্যাস হওয়া কমাতে পোশাকের দিকেও নজর দেওয়া দরকার! খুব আঁটোসাঁটো পোশাক পরলে খাওয়ার পরে অস্বস্তি হবে। তা ছাড়া শরীরের মধ্যে গ্যাস চলাফেরা করতে না পেরে এক জায়গায় জমে গিয়ে বিপত্তির সৃষ্টি করবে।

৭। কথা বলা বা খাওয়ার সময়ে বাইরের বায়ুও শরীরে প্রবেশ করে। এর ফলেও গ্যাস জমে শরীরে। সেই কারণে ধুমপান করলে বা খুব বেশি চুইং গাম খেলে শরীরে বাতাস ঢুকে যায়। তাই এগুলি এড়িয়ে চলা দরকার।

৮। নিয়মিত ব্যায়াম করুন। এতে শরীরের সব অঙ্গই সচল থাকে। হজমে সাহায্য করে। ফলে গ্যাস জমতে পারে না।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই