মেইন ম্যেনু

‘চাকরি না দিয়ে বিদেশে লোক পাঠালে আইনি ব্যবস্থা’

যে সব এজেন্সি কাজের ব্যবস্থা না করে বিদেশে কর্মী পাঠাবে তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি।

মঙ্গলবার রাজধানীর ইস্কাটনে প্রবাসী কল্যাণ ভবনে নিরাপদ অভিবাসন বিষয়ক সচেতনতামূলক তথ্য চিত্রের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন নুরুল ইসলাম বিএসসি। তথ্যচিত্রটির চিত্রনাট্য, সংলাপ ও নির্দেশনা প্রদান করেছেন অভিবাসন বিশেষজ্ঞ ও বিশ্লেষক হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ।

যে সব কর্মী প্রবাসে কাজ না পেয়ে বা নির্যাতনের শিকার হয়ে দেশে ফিরে আসছেন তাদের কেউই মন্ত্রনালয়ের মাধ্যমে যায়নি উল্লেখ করে মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেন, ‘তারা প্রতারক এজেন্সি বা দালালদের মাধ্যমেই প্রবাসে গিয়েছিলেন।’ এ সব এজেন্সি বা দালাল চক্রকে চিহ্নিত করা হবে বলেও তিনি জানান।

ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অভিবাসন নিয়ে সচেতনতামূলক তথ্যচিত্রটি বিশ্বকাপ খেলার সময় বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রচার করা হবে।

নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেন, ‘যারা বিদেশে লোক পাঠানোর কাজ করছেন, আপনারা করেন কিন্তু ঠিকভাবে করেন। সত্যিকার অর্থে করেন। যেখানে চাকরি আছে ওখানেই পাঠান। চাকরি নাই এমন জায়গায় পাঠিয়ে দিয়ে মানুষকে কষ্ট দিবেন এটা ঠিক না। আগামীতে এরকম তথ্য পেলে, অভিযোগ পেলে আমার মন্ত্রণালয় থেকে আমি ব্যবস্থা নিব। প্রয়োজনে পুলিশী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী বলেন, ‘বিদেশ গমন ইচ্ছুক কর্মীরা যাতে প্রতারণার শিকার না হন সেই লক্ষ্যে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধায়নে নির্মিত হয়েছে এই নিরাপদ অভিবাসন বিষয়ক সচেতনতামূলক তথ্যচিত্র। আমি এই তথ্যচিত্র নির্মাণের জন্য হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণকে আমার ব্যক্তিগত ও এ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।’

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান সচিব ড. নমিতা হালদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ওয়েজ আনার্স কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক গাজী মোহাম্মদ জুলহাস, জনশক্তি, বিএমইটির মহাপরিচালক মো. সেলিম রেজা, বাংলাদেশ বৈদেশিক কর্মসংস্থান অ্যান্ড সার্ভিসেস লিমিটেডের (বোয়েসেল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মরণ কুমার চক্রবর্তী এবং তথ্যচিত্রের নির্মাতা অভিবাসন বিশেষজ্ঞ হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ।

তথ্যচিত্রটির নির্মাতা হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ বলেন, ‘কর্মের সন্ধানে চাকরি নিয়ে বিদেশ যেতে আগ্রহী মানুষের একটা বড় অংশই জানে না বিদেশ যেতে কী কী ধাপ অনুসরণ করতে হয়। তাই অনেকেই না জেনে না বুঝে অন্ধের মতো দালালদের খপ্পড়ে পড়ে বিদেশে চাকরি করতে যায়। ফলে বিভিন্নভাবে প্রতারণার শিকার হয়ে অনেকেই দেশে ফিরে আসে। তাই এই তথ্যচিত্রটিতে বিদেশ যাওয়ার আগে কিভাবে চুক্তিপত্র, ভিসার কপি, বেতন কত, স্বাস্থ্য ঝুঁকি আছে কিনা, কীভাবে স্মার্ট কার্ড গ্রহণ করতে হয়, কর্মস্থলের পরিবেশ সহ বিভিন্ন বিষয় জেনে বিদেশ যেতে হবে তা ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। এতে গ্রামের একজন জনপ্রিয় শিক্ষক, দরিদ্র কৃষক ও গ্রাম্য দালালকে নিয়ে তথ্যচিত্রটির কাহিনী চিত্রায়িত হয়েছে। দেখানো হয়েছে দালালের খপ্পরে পড়ে প্রশিক্ষণ না নিয়ে, ভাষা জ্ঞান অর্জন না করে দরিদ্র কৃষকের ছেলে ভিটা মাটি বিক্রি করে বিদেশ গিয়ে জেলে আছে।’ এই তথ্যচিত্রটি বিদেশ যেতে ইচ্ছুক সকলের জন্য তথ্যবহুল ও শিক্ষনীয় হবে বলে জনাব কিরণ আশা করেন।

তথ্যচিত্রটিতে অভিনয় করেছেন জাতীয় পুরুস্কার প্রাপ্ত অভিনেতা ফজলুর রহমান বাবু, অভিনেতা আহসানুল হক মিনু ও সোহেল খান।



মন্তব্য চালু নেই