মেইন ম্যেনু

ছেলে নিয়ে পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে ফাইনালসেরা তামিম

তামিম ইকবাল যা খেললেন! তারপর কি আর কেউ ফাইনালের ম্যাচসেরার পুরস্কারটি দাবি করতে পারতেন! সেই উপায় আসলে ছিল না। শেষ পর্যন্ত ফাইনালসেরা হিসেবে ঘোষণা হলো তামিমের নামটি, অনুমিতভাবেই।

তামিমও পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে এসে ম্যাচসেরার পুরস্কার হাতে নিলেন, কিন্তু তার সঙ্গে এটা কে? বুঝতে অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। তামিমের কোলে ছিল তারই ছেলে আরহাম ইকবাল। বাবার সঙ্গে আনন্দের মুহূর্তের সঙ্গী হলেন তামিম জুনিয়র।

৬১ বলে হার না মানা ১৪১ রান! টি-টোয়েন্টি ফরমেটে কোনো ব্যাটসম্যানের ইনিংস এটা? তিনিও আবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিধ্বংসী আন্দ্রে রাসেল কিংবা ক্রিস গেইল নন, নন দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্স।

তিনি বাংলাদেশের ‘বুমবুম’খ্যাত ওপেনার তামিম ইকবাল। নিজের দিনে তামিম যে কি করতে পারেন, সেটিই যেন দেখিয়ে দিলেন আরও একবার।

কতটা ভয়ংকর হলে একজন সেঞ্চুরিয়ানের ইনিংসে চারের চেয়ে ছক্কা বেশি হতে পারে! তামিমের ১৪১ রানের ইনিংসটিতে বাউন্ডারির মার ১০টি। আর ছক্কা? ১১টি। এটিই বিপিএলের এক ইনিংসে বাংলাদেশিদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ছক্কার রেকর্ড। ২০১৬ সালে ১২২ রানের ইনিংস খেলা সাব্বির রহমান ছক্কা মেরেছিলেন ৯টি।

তামিমের এই ইনিংসটি বিপিএলের ফাইনালের ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সংগ্রহও। মাত্র ৫ রানের জন্য ২০১৭ সালের আসরে করা ক্রিস গেইলের ১৪৬ রানকে টপকে যেতে পারেননি বাংলাদেশের এ ড্যাশিং ওপেনার।



মন্তব্য চালু নেই