মেইন ম্যেনু

জঙ্গিদের ফ্ল্যাটটি খুব নিরব ছিল : বাড়ির বাসিন্দা

‘বাড়ির পাঁচ তলার যে ফ্ল্যাটটিতে জঙ্গিরা থাকতো সেটা খুব নিরব ছিল। আসা-যাওয়া করলে বোঝা যেতনা ভেতরে কেউ আছে।’ জঙ্গি আস্তানার ছয় তলার বাসিন্দা মো. পারভেজ মোবাইল ফোনে এসব কথা জানিয়েছেন।

পারভেজ বলেন, আমি রুবি ভিলার ছয় তলাতে থাকি। রাত ৩টার দিকে ব্যাপক গোলাগুলির শব্দ শুনে ঘুম ভেঙে যায়। তারপর বাইরে বের হওয়ার চেষ্টা করি। কিন্তু বাইরে থেকে তালা দেয়া পাই। তখন আমি ভয় পেয়ে বাবাকে কল দেই। পরে টিভিতে দেখে নিশ্চিত হই, এই বাসায় জঙ্গি আস্তানা পাওয়া গেছে। আমরা নিরাপদে আছি।

পারভেজ আরো বলেন, পাঁচ তলাতে মূলত কয়জন থাকতো, কারা থাকতো সেটা আমরা বুঝতে পারিনি। ফ্ল্যাটটি খুব নিরব ছিল। আসা-যাওয়া করলে বোঝা যেত না ভেতরে কেউ থাকে।

এর আগে শুক্রবার ভোররাত ৩টা থেকে ১৩/১ রুবি ভিলা নামের ওই বাড়ির পঞ্চম তলার ওই আস্তানায় অভিযান শুরু করে র‌্যাব সদস্যরা।

র‌্যাবের ভাষ্যমতে, র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ভেতরে থেকে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ও গ্রেনেড ছোড়ে জঙ্গিরা। এ সময় র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। এতে ওই ভবনের ভেতরে থাকা ওই তিন জঙ্গি নিহত হয়। তবে ভবনে নিরাপদ ছিলেন অন্য বাসিন্দারা।

স্থানীয় বাসিন্দা রুহুল আমিন বলেন, ওই বাসায় কিছু ব্যাচেলর ভাড়া থাকে। তবে আমাদের কাছে কখনওই জঙ্গি বলে মনে হয়নি।

র‌্যাবের মুখপাত্র মুফতি মাহমুদ খান বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৬ তলা বাড়িটির পঞ্চম তলায় কয়েকজন জঙ্গি সদস্য রয়েছেন বলে তারা জানতে পারেন। এই তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালাতে গেলে বাড়ির ভেতর থেকে গুলিবর্ষণ ও গ্রেনেড ছুড়ে মারা হয়। র‌্যাব সদস্যরা পাল্টা গুলি ছুড়লে হতাহতের ঘটনা ঘটে। এতে দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন বলে জানান তিনি।



মন্তব্য চালু নেই