মেইন ম্যেনু

জি এম কাদেরকে চেয়ারম্যান ঘোষণা অনুষ্ঠানে ছিলেন না যারা

জি এম কাদেরকে চেয়ারম্যান ঘোষণা জাতীয় পার্টির গঠনতন্ত্রের পরিপন্থী জানিয়ে রওশন এরশাদ বলেছেন, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ছোট ভাই এখনও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানই আছেন। সোমবার (২২ জুলাই) মধ্যরাতে দলকে দেয়া এক চিঠিতে তিনি এ কথা বলেন। জাতীয় পার্টির বেশ কয়েকজন সিনিয়র নেতা তার সঙ্গে একমত বলেও জানান রওশন।

মৃত্যুর কয়েকদিন আগে ছোটভাই জিএম কাদেরকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব দেন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। নিজের অবর্তমানে জি এম কাদেরকে পরবর্তী চেয়ারম্যান হিসেবেও ঘোষণা করেন তিনি।

গত ১৪ জুলাই রাজধানীর সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান এরশাদ। ১৬ জুলাই সম্পন্ন হয় তাঁর দাফন। দাফনের ১ দিন পরেই বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলন ডেকে জি এম কাদেরকে দলের চেয়ারম্যান হিসেবে ঘোষণা দেন মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা।

যদিও ঐ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন না দলের সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদসহ প্রভাবশালী অনেক নেতাই। প্রশ্ন ওঠে দলের শীর্ষ ফোরাম প্রেসিডিয়ামদের মতামত ছাড়া জিএম কাদেরকে চেয়ারম্যান ঘোষণার বৈধতা নিয়েও। যদিও কাদের বরাবরই দাবি করে আসছিলেন এ নিয়ে দলের মধ্যে কোনো বিভেদ তৈরি হয়নি।

সোমবার মধ্যরাতে রওশন এরশাদ দলকে চিঠি দিয়ে জানান, জিএম কাদেরকে চেয়ারম্যান ঘোষণা বৈধ নয়। তার সঙ্গে একাত্মতা জানান ১০ জন শীর্ষ নেতা।

জাতীয় পার্টির কয়েকজন শীর্ষ নেতা জানান, এটা জাতীয় পার্টির ধারা পরিপন্থী। এমন পরিস্থিতিতে জাতীয় পার্টিতে নতুন করে ভাঙন তৈরির শঙ্কায় দলের নেতাকর্মীরা।



মন্তব্য চালু নেই