মেইন ম্যেনু

টেস্টে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা ‘শিক্ষানবিশ’: দ্রাবিড়

টেস্টে নিজেদের দূর্গে বাঘ ভারত! তবে বিদেশে বিড়াল! এই তো কদিন আগে ইংল্যান্ডে ৪ ম্যাচ টেস্ট সিরিজে নাকানিচুবানি খেয়ে এসেছে বিরাট বাহিনী। দেশে ফিরতেই আবার স্বরূপে। ২ ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে উড়িয়ে দিয়েছে তারা।

তবে সর্বজয়ী হতে গেলে বিদেশেও ভালো করতে হবে ভারতকে। কিন্তু সেখানেই আশাটা পূরণ হচ্ছে না। নেপথ্যে বর্তমান ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের লাল বলে কম অনুশীলন করাকে দায়ী করছেন কিংবদন্তি রাহুল দ্রাবিড়। তিনি বললেন, ওয়ানডেতে দক্ষ হলেও টেস্টে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা এখনও শিখছেন। যেটা শুরু হওয়া উচিত আরও আগে।

আইসিসিকে দেয়া সাক্ষাতকারে দ্রাবিড় বলেন, শিক্ষা একটি চলমান প্রক্রিয়া। মানুষ সবসময় শেখে। এক বা দুই বছরে তা শেষ হয়ে যায় না। তবে এটা অনেক আগে শুরু হওয়া উচিত। টেস্টে ভালো করতে হলে অনূর্ধ্ব-১৯ ও ভারত-এ দল থেকে এটা শুরু করা দরকার। লাল বলে ভালো করতে হলে এ প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে আসতে হবে। আমরা সাদা বলে অনেক ভালো। তবে লাল বলে আমাদের প্রতিভা তুলে ধরতে হবে।

সাদা বলে ভালো এবং লাল বলে খারাপ করার কারণও উল্লেখ করেছেন তিনি, আমরা সাদা বলে প্রচুর খেলি। ঘরোয়া ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলি। প্রতি টুর্নামেন্টে সাদা বলের খেলা থাকে। কিন্তু লাল বলে কেবল খেলা হয় প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট। টেস্টে উন্নতি করতে চাইলে আরো প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট বাড়াতে হবে। অনূর্ধ্ব-১৯ ও এ দল পর্যায়েই তা শুরু করতে হবে।

যথার্থ উদাহরণ দ্রাবিড় নিজেই, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট খেলে আমি দারুণ উপকৃত হয়েছিলাম। এখন সূচিতে বেশ পরিবর্তন এসেছে। তবে বিদেশ সফরে কোনও টেস্ট ম্যাচের আগে প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেললে ভীষণ উপকৃত হওয়া সম্ভব।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে ইনিংস ও ২৭২ রানে জয় পেয়েছে ভারত৷ তবে বিদেশ সফরে ভারতীয়দের ব্যাটিংটাকে চ্যালেঞ্জ মানছেন দ্য ওয়ালখ্যাত ব্যাটার, ভবিষ্যতে এটা আমাদের জন্য বড় চালেঞ্জ হবে। তা ভালোভাবে মোকাবেলা করতে হবে।

এর মাঝে আশার আলোও দেখছেন দ্রাবিড়, এখন ভারতীয় দলে জায়গা ধরে রাখা কঠিন। ইদানিং প্রচুর খেলা হচ্ছে ৷ অসংখ্য খেলোয়াড় উঠে আসছে। আগের থেকে এখন প্রতিভার স্ফূরণ ঘটানোর প্রচুর সুযোগ রয়েছে। তারা ঠিকই হাল ধরবে।

ঘরের মাঠে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে সিরিজ শেষে নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়া সফরে যাচ্ছে ভারত। অজিদের বিপক্ষে ৪ টেস্টের সিরিজ খেলবে কোহলি বাহিনী।



মন্তব্য চালু নেই