মেইন ম্যেনু

নভেম্বরের মধ্যেই জাকসু নির্বাচন : জাবি উপাচার্য

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম বলেছেন: নভেম্বর মাসের মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ( জাকসু) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সেই লক্ষ্যে ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে জাকসু নির্বাচনের ‘নির্বাচন কমিশন’ গঠন করা হবে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ৩৮তম বার্ষিক সিনেট অধিবেশনে উপাচার্য জাকসু নির্বাচনের এ ঘোষণা দেন।

অধিবেশনের শুরুতেই তিনি এ ঘোষণা দিয়ে বলেন, দীর্ঘক্ষণ ছাত্রদের সাথে জাকসু নিয়ে বৈঠক করে অধিবেশনে আসতে হয়েছে। জাকসু নির্বাচনের ব্যাপারে তাদের কিছু দাবি দাওয়া ছিলো। আগামী জুলাই মাসের মধ্যে নির্বাচন কমিশন গঠনের মাধ্যমে নভেম্বরের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার ব্যাপারে শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করেছি।

উপাচার্য বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের অধিকার নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সবসময় তৎপর রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ও ভোটার তথ্য হালনাগাদের পর যত দ্রুত সম্ভব নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা হবে।’

নির্বিঘ্নে ছাত্র সংসদ নির্বাচন(জাকসু) সফল করতে উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও সিনেটরদের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

এর আগে বিকাল তিনটায় জাকসু নির্বাচনের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৮তম সিনেট অধিবেশনকে সামনে রেখে পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান কর্মসূচী পালন করতে থাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা সকল বৈধ ছাত্র সংগঠনগুলোর সহাবস্থান নিশ্চিত করে আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে জাকসু নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার দাবি জানান।

এসময় সিনেট অধিবেশনে অংশগ্রহণ করতে আসা সিনেটেররা সিনেট হলে প্রবেশে বাধা সম্মুখীন হন। পরবর্তীতে উপাচার্য শিক্ষার্থীদের নিয়ে জাকসু নির্বাচনের ব্যাপারে আলোচনায় বসেন।

বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম অনিক বলেন, ‘দীর্ঘ ২৮ বছর কোনো ছাত্র প্রতিনিধি সদস্য ছাড়াই সিনেট অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। বারবার বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে ছাত্রদের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার কথা বললেও বিভিন্ন অজুহাতে আমাদের হতাশ করে আসছে। আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে জাকসু নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা চাই।’

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি জুয়েল রানা বলেন, ‘ছাত্র প্রতিনিধি ছাড়া অপূর্ণাঙ্গ সিনেট কখনো ছাত্রবান্ধব হতে পারে না। এখানে যে বাজেট প্রণয়ন করা হবে সেটা কখনো ছাত্র বান্ধব হবে না। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে দাবি জানাই অবিলম্বে যেন জাকসু বাস্তবায়ন করে অপূর্ণাঙ্গ সিনেটকে পূর্ণাঙ্গ করবেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের অধিকার নিশ্চিত করে।’

সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি আশিকুর রহমান বলেন, ‘৭৩ এর অধ্যাদেশ অনুযায়ী সিনেটে জাকসু থেকে মনোনীত পাঁচজন সদস্য থাকার কথা ছিল। কিন্তু ছাত্র প্রতিনিধি ছাড়াই সিনেট অধিবেশন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আগামী ৩১ জুলাই এর মধ্যে ক্যাম্পাসে সব ছাত্র সংগঠনের সহাবস্থান নিশ্চিত করে জাকসু নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করতে হবে। অন্যথায় আগামিতে নির্বাচিত ছাত্র প্রতিনিধি ছাড়া সিনেট অধিবেশন অনুষ্ঠিত হতে দেওয়া হবে না।’



মন্তব্য চালু নেই