মেইন ম্যেনু

নাটোরে বাস-লেগুনার সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৫

নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার নাটোর-পাবনা মহাসড়কে যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে আহতদের মধ্যে আরও দুইজন প্রাণ হারিয়েছেন। এ নিয়ে নিহতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৫ জনে।

শনিবার বিকেল ৪টার দিকে লালপুরের কদিমচিলান এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই ১২ জন ও হাসপাতালে নেয়ার পর একজন নিহত হন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থা রাতে আরও দুইজনের মৃত্যু হয়। নিহতদের মধ্যে ১২ জনই লেগুনার যাত্রী। সর্বশেষ দুইজন নিয়ে নিহত বাসযাত্রীর সংখ্যা দাঁড়ালো তিনে। এছাড়াও বাসের ১৭ জন যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছেন।

নিহতদের মধ্যে কয়েকজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন–লেগুনাচালক ঠাকুরগাঁওয়ের রহিম আলী (২৮), নাটোরের বড়াইগ্রাম নারায়ণপুরের রজুফা বেগম (৫০) ও শেফালী বেগম (৪৫), জামাইদিঘার লগেনা বেগম (৬৫), পাবনা দাশুড়িয়ার মিরকামারি গ্রামের শাপলা আক্তার (২০) ও টাঙ্গাইলের গোপালপুরের রোকন সেখ (২২)।

স্থানীয়রা জানান, বিকেল ৪টার দিকে পাবনা থেকে রাজশাহীগামী চ্যালেঞ্জার পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে বনপাড়া থেকে ঈশ্বরদীগামী লেগুনার সংঘর্ষ ঘটে। দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে বনপাড়া হাইওয়ে থানা পুলিশ ও নাটোর ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকর্মীরা আহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠায়।

বনপাড়া হাইওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামসূন নূর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।



মন্তব্য চালু নেই