মেইন ম্যেনু

নড়া দাঁত মজবুত করবেন যেভাবে

অনেকেই দাঁত নড়া সমস্যায় ভুগেন। কোনো কোনো সময় খাবার খেতেও ভয় পান তারা। হাজার ইচ্ছে থাকলেও প্রিয় খাবারগুলোকে এড়িয়ে চলতে হয়। কিন্তু এভাবে আর কতোদিন?

দাঁত নড়া একটি রোগ, যাকে পেরিওডোন্টাম বলা হয়। এটি দাঁতের পার্শ্ববর্তী টিস্যুকে আক্রমণ করে এবং দাঁত সমর্থনকারী হাড়কেও প্রভাবিত করে।

গবেষকদের মতে, ফাইব্রাস টিস্যু যা হাড়ের সঙ্গে দাঁতের সংযোগ ঘটায়, নরম এবং ভঙ্গুর হয়ে যাবার ফলে দাঁত নড়তে থাকে।

অত্যাধিক দাঁত বা মাড়ি পরিষ্কার, দাঁতের সংক্রমণ, অর্থোডোন্টিক চিকিৎসা যেমন : কামড় সমন্বয়, বার্ধক্য, মৌখিক স্বাস্থ্যবিধির অভাব, মাড়ির ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ এবং পারিবারিক সূত্রও দাঁত নড়ার কারণ হতে পারে।

আলগা দাঁত, খাবার খেতে অস্বস্তি বোধ, নড়া দাঁতের আশপাশে লাল হয়ে টিস্যুর ফোলে যাওয়া, দাঁত ব্যথা ইত্যাদি দাঁত নড়ার লক্ষণ হতে পারে।

রোজ রোজ নড়া দাঁত নিয়ে শক্ত খাবার এড়িয়ে গেলে চলবে, সবার আগে আপনাকে এর প্রতিকার খুঁজতে হবে। তবে এনিয়ে এতো চিন্তার কিছু নেই! কারণ এ সমস্যার সমাধান রয়েছে আপনার হাতের কাছেই!

নিম্নে নড়া দাঁত মজবুত করার কিছু ঘরোয়া উপায় আলোচনা করা হল-

মুখ ধোয়া : ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ থেকে দাঁত নড়া শুরু হতে পারে। সর্বদা মাউথওয়াশ ব্যবহার করুন এবং দিনে দুবার দাঁত ব্রাশ করুন। সবসময় খাওয়ার পরে মুখ ধুয়ে পরিষ্কার করা আবশ্যক।

লবণ এবং সরিষার তেল : সরিষার তেলের সঙ্গে এক চা চামচ লবণ মেশান এবং মৃদু মালিশ দ্বারা আপনার মাড়ি ওপর প্রয়োগ করুন। দাঁত নড়া সমস্যায় এটি সেরা ঘরোয়া প্রতিকার।

কালো মরিচ এবং হলুদ: মরিচ গুঁড়া ও হলুদের একটি পেস্ট তৈরি করুন এবং আপনার মাড়ি ওপর আলতো করে ম্যাসাজ করুন। প্রয়োগের ৩০ মিনিট পর খাবার খান। এতে মাড়ির ব্যথা ও ফোলা উপশম হবে।

আমলা : আমলা ভিটামিন সি সমৃদ্ধ। এ ভিটামিন মাড়ি ও দাঁতের সংযুক্ত টিস্যু নিরাময় করতে সাহায্য করে। এটি নড়া দাঁত নিরাময় করতে সাহায্য করে। আমলার রস দিয়ে দিনে অনেকবার মুখ কুলকুচি করে নিন। আপনি রসটি পানও করতে পারেন।

ওরেগানো তেল : এটি মাড়ি এবং টিস্যুর ব্যথা সারিয়ে তোলে। আপনার মাড়ির ওপর ওরেগানো তেল দিয়ে ম্যাসেজ করুন। এটা স্বাভাবিকভাবেই দাঁত সারিয়ে তুলবে ও নড়া দাঁত প্রতিরোধ করবে।

লবণ: এক গ্লাস জলে নুন গুলে মুখ কুলকুচি করে নিন। এটা সব মৌখিক সংক্রমণ নাশ করবে কারণ লবণে এন্টিসেপটিক বৈশিষ্ট্য আছে। এটা আপনার মাড়ি শক্ত করবে এবং দাঁত নড়া প্রতিরোধ করবে।

তরল পথ্য : শক্ত খাবার খাওয়ার সময় যদি আপনি ব্যথা অনুভব করেন, তাহলে উষ্ণ সবজি বা মুরগির স্যুপ খাওয়াই ভাল। এতে ব্যথা এবং প্রদাহ উপশম হবে। এছাড়া এটি আপনার শরীরে পুষ্টি সরবরাহ করবে যা সংক্রামণের সঙ্গে লড়তে সাহায্য করবে।

পিপারমিন্ট অয়েল : এটা ব্যথা এবং মাড়ির প্রদাহ উপশম করতে সাহায্য করে যার ফলে নড়া দাঁতের সমস্যা দূর হয়।

লবঙ্গ তেল: এটি দাঁত ব্যথা এবং মাড়ি প্রদাহের জন্য একটি সুপরিচিত প্রতিকার।এটা মাড়ি মজবুত করতে সাহায্য করে। আপনার মাড়ির ওপর ম্যাসেজ করুন ব্যথা ও প্রদাহ থেকে স্বস্তি পেতে এবং এটি দাঁত নড়া  ঠিক করতেও সাহায্য করে।

এছাড়া দাঁত নড়া সমস্যা থেকে নিস্তার পেতে সবুজ শাক সবজি খান। সবুজ শাক-সবজি সংক্রমণ থেকে আপনাকে দূরে রাখে।  আপনার খাদ্যের মধ্যে সবুজ সবজি স্যালাড হিসেবে খাওয়ার অভ্যাস করুন।

সাবধানতা : আম্লিক ফলমূল এড়িয়ে চলুন অত্যাধিক আম্লিক ফল যেমন লেবু দাঁতের এনামেল ধ্বংস করে। শুধু তাই নয় দাঁতের শিকড় আলগা করে যা দাঁত সংবেদনশীল এবং আলগা করে দেয়।






মন্তব্য চালু নেই