মেইন ম্যেনু

পদ্মায় ভেসে বেড়াচ্ছে কুমির, এলাকায় আতঙ্ক

পাবনা সদর উপজেলার চরকোমরপুরে পদ্মা নদীতে দুই সপ্তাহ ধরে ভেসে বেড়াচ্ছে বিশাল আকারের একটি কুমির। চলতি বছর বর্ষার পানিতে ভেসে আসা কুমিরটি পদ্মায় আটকা পড়েছে বলে গ্রামবাসীর ধারণা।

খাদ্য সংকটে কুমিরটি হিংস্র হয়ে ওঠায় বিপাকে পড়েছেন কৃষক ও জেলেরা। বন বিভাগের মাধ্যমে কুমির উদ্ধারে দ্রুত প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি করেছেন স্থানীয়রা।

নদী শুকিয়ে যাওয়ায় ছোট খালে পরিণত হওয়া নদীতেই গত ১০-১৫দিন ধরে ভেসে বেড়াচ্ছে কুমিরটি। প্রায় সপ্তাহ খানেক আগে স্থানীয় একজন বাসিন্দা মাছ ধরতে গিয়ে প্রথম কুমিরটি দেখতে পান। এরপর থেকেই ভয়ে আর কেউ ওই খালে মাছ ধরতে যাচ্ছেন না।

চরকোমর গ্রামের আসাদ বিশ্বাস বলেন, কয়েকদিন আগে চরে মাছ ধরতে গিয়ে কুমিরটিকে মাথা তুলতে দেখি। ভয়ে সবাইকে খবর দেই। এরপর অনেকেই কুমিরটিকে দেখে। এখনো ভয়ে চরে কেউ গরু, ছাগল নিয়ে আসছে না, জমিতে আবাদ করাও বন্ধ রেখেছে অনেকে। মাঝে মাঝে নদীর পাড়ে উঠেও বিশ্রাম নেয় কুমিরটি।

পাবনার জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন বলেন, এরইমধ্যে কুমির উদ্ধারে সংশ্লিষ্টদের খবর দিয়েছি। বিভাগীয় বন কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছে। আশা করছি দ্রুততম সময়ে মধ্যে কুমিরটি উদ্ধার করা সম্ভব হবে।

বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ অঞ্চলের বন সংরক্ষক মো. জাহিদুল কবির বলেন, চরকোমরপুর গ্রামটির শেষ সীমানা দিয়ে বয়ে গেছে পদ্মা নদী। এই পদ্মা নদীর সঙ্গেসংযুক্ত খালটি গভীর থাকায় বর্তমানে কুমিরটি নিরাপদে আছে। কোথা থেকে, কীভাবে এই কুমির এখানে এসেছে বলা কঠিন। আরও কুমির আছে কি-না খোঁজ নেয়া হচ্ছে। কুমিরটি উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে ছেড়ে দেয়া হবে।



মন্তব্য চালু নেই