মেইন ম্যেনু

পাঠকপ্রিয় কবি হাবীবাহ্ নাসরীনের জন্মদিন আজ

সাহিত্যে অবদান রাখার স্বীকৃতি স্বরুপ চলতি বছরের সাহিত্য প্রণোদনা পুরস্কারপ্রাপ্ত পাঠকপ্রিয় কবি হাবীবাহ্ নাসরীনের জন্মদিন আজ। পিরোজপুরে ২১ শে সেপ্টেম্বর এক সম্ভান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। ঢাকার শিল্প, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সংগঠন সেন্টার ফর ন্যাশনাল কালচারের চলতি বছরের সাহিত্য প্রণোদনা পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন এ তরুণ লেখক ও সাংবাদিক। তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘কবিতা আমার মেয়ে’ ও প্রথম উপন্যাস ‘তুমি আছো, তুমি নেই’ বই দুটির জন্য তাকে এই পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর বিকেলে রাজধানীর নজরুল একাডেমী মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁর হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হবে বলে জানা গেছে।

পুরস্কার প্রাপ্তির অনুভূতি নিয়ে হাবীবাহ্ নাসরীন জানান, ‍’অনুভূতি অবশ্যই ভা‌লো। যে‌কো‌নো কা‌জের জন্য পুরস্কার পে‌লে কা‌জের আগ্রহ আরো বে‌ড়ে যায়। আমারও দা‌য়িত্ব বে‌ড়ে গেল পাঠকদের ভা‌লো লেখা উপহার দেয়ার।পাঠকের ভালবাসাই একজন লেখকের বড় অর্জন; আর প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতিও নিশ্চয়ই তার অংশ বিশেষ’। এই পুরস্কার অর্জনের মাধ্যমে লেখালেখি নিয়ে জীবনের প্রথম কোনো প্রাতিষ্ঠানিক স্বীকৃতি পেয়েছেন তিনি। পুরস্কারপ্রাপ্তিতে প্রিয় লেখককে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন তাঁর হাজারো ভক্ত-পাঠক।

হাবীবাহ্ নাসরীনের লেখালেখির হাতেখড়ি শৈশব থেকে। নিজের ইচ্ছা থেকেই দ্বিতীয় শ্রেণীতে পড়ার সময় থেকে তিনি লেখালেখি শুরু করেন। এখন পুরোদমে লেখক তিনি। সৃষ্টিশীলতার প্রত্যয়ে ক্রমান্বয়ে নিজেকে নিজেই ছাড়িয়ে যাচ্ছেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তার পোষ্ট করা লেখায় লাইক ও শেয়ারের সংখ্যা দেখা যায় রেকর্ড সংখ্যক; যা একজন তরুণ লেখকের জন্য গৌরবের বিষয়। কবিতা লেখালেখিতে বেশি মনযোগ তার, তবে ইদানীং গল্প এবং উপন্যাসও লিখে যাচ্ছেন। উল্লেখিত দুটি বই ছাড়াও গেল বইমেলায় তার আরো একটি শিশু কিশোর উপযোগী গল্পের বই প্রকাশিত হয়েছে, যা পাঠক মহলে ব্যাপক সাড়া ফেলতে সক্ষম হয়েছে। হাবীবাহ্ নাসরীন বর্তমানে দেশের একটি শীর্ষস্থানীয় অনলাইন গণমাধ্যমের লাইফস্টাইল বিভাগের ইনচার্জ হিসেবে কর্মরত আছেন। এর আগে তিনি যুক্ত ছিলেন আরো কয়েকটি পত্রিকায়। সাংবাদিকতা ও সাহিত্য ছাড়াও লাইফস্টাইল এবং ফ্যাশন নিয়ে ক্রমাগত লেখালেখি করে ব্যাপক পরিচিত পেয়েছেন হাবীবাহ্ নাসরীন।

জন্মদিনের অনুভূতি জানিয়ে হাবীবাহ বলেন, জন্মদিনে শুভেচ্ছা-অভিনন্দন পেতে কার না ভালো লাগে? আমি সামান্য একজন মানুষ, তবু অনেকেই আমাকে ভালবাসে, আমার লেখা পছন্দ করে- এটাই জীবনের পরম প্রাপ্তি। জন্মদিনে খুব আনন্দ লাগে, কিন্তু জীবন থেকে একটি বছর খসে গেল ভেবে মনও খারাপ হয়’। নিজের জন্য হাবীবাহ সবার কাছে দোয়া কামনা করেছেন। শুভ জন্মদিন, হাবীবাহ্ নাসরীন দ্য গ্রেট! সম্মুখে উজ্জ্বল আগামী। জয় হো!






মন্তব্য চালু নেই