মেইন ম্যেনু

পুরুষেরা প্রতিদিন যেসব মিথ্যা বলে

প্রতিদিন পুরুষেরা কী কী বিষয়ে মিথ্যা বলে থাকে এ নিয়ে একটি গবেষণাপত্র প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের জার্নাল অব পারসোনালিটি অ্যান্ড সোশ্যাল সাইকোলজি।

অনলাইন থেকে তথ্য নিয়ে প্রকাশিত এই গবেষণায় দেখা গেছে, মূলত প্রেমিকা বা স্ত্রীর আস্থা অর্জনের জন্য মিথ্যা কথা বলে নিজেকে উপযুক্ত প্রমাণ করতে চায় পুরুষেরা।

রিডার্স ডাইজেস্ট জানায়, সম্প্রতি প্রকাশিত ওই গবেষণায় জানা যায়, ৬৫ বছরের কম বয়সী প্রায় ৩০ মিলিয়ন মার্কিন নাগরিক যৌন অক্ষমতায় ভোগে। কিন্তু তাদের অধিকাংশই এ বিষয়টি অস্বীকার করতে চায়। এমনকি এ সমস্যার জন্য চিকিৎসা নিতে গিয়ে চিকিৎসকদের কাছেও মিথ্যা বলে তারা।

নিজেদের ভুল ঢাকতে মিথ্যা বলে থাকে পুরুষেরা। সম্মান বা মর্যাদা কমে যাবে বলে সহজে নিজেদের ভুলগুলো স্বীকার করতে চায় না পুরুষেরা। এ জন্য তারা মিথ্যা বলে থাকে। এ ছাড়া লজ্জাকর পরিস্থিতি থেকে বাঁচতেও তারা মিথ্যা বলে।

সঙ্গীর সাহচর্য পেতে বা তার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হতে মিথ্যা বলে থাকে পুরুষেরা। বিশেষ করে যৌন সম্পর্ক গড়ে তোলার সময় সত্য বলতে চায় না পুরুষেরা। ব্যবসাতে সুযোগ আদায় করতেও পার্টনার বা কাস্টমারের সঙ্গে মিথ্যা বলে তারা।

মানসিক পরিস্থিতি সম্পর্কে জানাতেও মিথ্যা বলে পুরুষেরা। নিজেদের অনুভূতি ঠিকঠাকভাবে প্রকাশ করতে চায় না তারা। নিজেদের ক্ষোভ, রাগ, যন্ত্রণা নিয়ে সত্যটা বলতে চায় না পুরুষরা। মানসিক অস্থিরতায় ভুগলেও তারা এমনটা বোঝায় যে, “সব ঠিক আছে, কোনো সমস্যা হয়নি।”

প্রাক্তন প্রেমিকা নিয়ে অধিকাংশ পুরুষই মিথ্যা বলে থাকেন। ব্রিটিশ একটি ডেটিং সাইট জরিপ করে দেখা গেছে, ২০০০ পুরুষদের মধ্যে ৪৪ শতাংশই পূর্বের সঙ্গী নিয়ে প্রকৃত সত্য বলতে চায় না। কারণ তারা চায় না প্রাক্তন প্রেমিকা নিয়ে নতুন সম্পর্কে কোনো ধরনের ঝামেলা হোক।

অধিকাংশ পুরুষই প্রকাশ করেন যে তারা একা থাকতে চান। সিনেমা, উপন্যাস, গান থেকেও অনুপ্রাণিত হয়ে পুরুষেরা বলে থাকে, তারা একা থাকতে পছন্দ করে। মনোবিজ্ঞানীদের মতে, পুরুষদের এ দাবি মিথ্যা। সামাজিক জীব হিসেবেই সবাই মানুষের সঙ্গ পছন্দ করে থাকে।

বেতন বা আয় নিয়ে পুরোপুরি সত্য বলতে চায় না পুরুষেরা। এটি খুবই পরিচিত ঘটনা আমাদের সমাজে। এমনকি নিজের প্রেমিকা বা স্ত্রীকেও নিজেদের আয় নিয়ে মিথ্যা বলে থাকে পুরুষেরা।

নিজেদের উচ্চতা নিয়ে খুব সহজে মিথ্যা বলে ফেলে পুরুষেরা। বিশেষ করে সঙ্গীকে আকৃষ্ট করতে বা নিজেকে আকর্ষণীয় হিসেবে উপস্থাপন করতে উচ্চতা নিয়ে মিথ্যা বলে থাকে তারা।



মন্তব্য চালু নেই