মেইন ম্যেনু

পোপের সফরে নজরদারিতে থাকবে ফেসবুক

ক্যাথলিক খ্রিস্টানদের প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিসের আসন্ন বাংলাদেশ সফরকালে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করবে পুলিশ। এই সফরের সময় কেউ যাতে কোনো গুজব ছড়াতে না পারে সেজন্য ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম মনিটরিং করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক এ কে এম শহীদুল হকের সভাপতিত্বে বুধবার পুলিশ সদরদপ্তরের সম্মেলনকক্ষে নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনাসংক্রান্ত এক সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়। আগামী ৩০ নভেম্বর পোপ বাংলাদেশ সফরে আসছেন। এই উপলক্ষে এই সভার আয়োজন করা হয়।

আইজিপি বলেন, পোপ ফ্রান্সিস বিশ্বের অন্যতম একজন সম্মানীয় ব্যক্তি। তাঁর বাংলাদেশ সফর আমাদের জন্য অত্যন্ত গর্বের, আনন্দের। পোপের সফরকালে পুলিশের সর্বোচ্চ নিরাপত্তাব্যবস্থা থাকবে। সফরের সব ভেন্যু এবং ভিভিআইপি গমনাগনকালে পোশাকে এবং সাদা পোশাকে পুলিশ এবং র‌্যাব সদস্য মোতায়েন থাকবে।

শহীদুল হক বলেন, পোপের সফরকালে নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠনের কার্যক্রম নিবিড়ভাবে মনিটরিং এবং তথ্য সংগ্রহ করা হবে। এ সময় তিনি ব্লক রেইডের মাধ্যমে তল্লাশি কার্যক্রম পরিচালনার জন্য পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন। তিনি পোপের সফরকে কেন্দ্র করে কোনো গোষ্ঠী যাতে অহেতুক গুজব ছড়াতে না পারে সে জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম মনিটরিংয়ের জন্য পুলিশ ও র‌্যাব কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেন।

সভায় পুলিশ সদরদপ্তরের অতিরিক্ত ডিআইজি (ইন্টারনাল অ্যান্ড স্পেশাল অ্যাফেয়ার্স) মো. মনিরুজ্জামান পোপের সফর উপলক্ষে সার্বিক নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা তুলে ধরেন।

সভায় অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন ও অপারেশনস্) মো. মোখলেসুর রহমান, ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত আইজিপি মোহাম্মদ শফিকুর রহমান, ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশনস্) মো. মিজানুর রহমান, র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জামিল আহমদ, পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এবং বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধিসহ বাংলাদেশে পোপের সফর উপলক্ষে গঠিত নিরাপত্তা ও স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক কমিটির আহ্বায়ক নির্মল রোজারিও এবং খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই