মেইন ম্যেনু

ফেসবুক লাইভে দাদিকে হত্যা, বাবা-মাকে জখম (ভিডিও)

ধারালো অস্ত্র দিয়ে দাদিকে হত্যার পর বাবা-মাকে কুপিয়ে ফেসবুকে লাইভ করেছে ভারতের তেইশ বছর বয়সী এক যুবক। পশ্চিমবঙ্গের হুগলিতে এই ঘটনা ঘটেছে। সোমবার সকালের এই ঘটনায় ইন্দ্রনীল রায় নামের ওই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে হুগলির চুঁচুড়া থানার পুলিশ।

কেন সে দাদিকে খুন করল? বাবা-মাকেই বা খুপরি দিয়ে জখম করল কেন? গ্রেপ্তারের পর এ প্রশ্ন তেইশ বছর বয়সী ইন্দ্রনীলকে বারবার জিজ্ঞাসা করেও কোনো সন্তোষজনক জবাব পাননি তদন্তকারীরা। অসংলগ্ন নানা জবাব দিয়েছে।

কখনও বলেছে, ‘আমি তো মারিনি।’ কখনও বিড় বিড় করে উচ্চারণ করেছে,‘কতগুলো লোক ঘুরছিল বাড়ির বাইরে। ওরাই মেরেছে।’ এমন সব জবাবই দিয়েছে নির্লিপ্ত ইন্দ্রনীল। প্রাথমিক ভাবে পুলিশের ধারণা, মানসিক অবসাদেই ভুগছে শ্রীরামপুর কলেজের সাবেক ওই ছাত্র।

ব্যান্ডেলের কেওটা শিবতলা এলাকায় রেল-কর্মচারী বিশ্বজিৎ রায়ের দোতলা বাড়ি। তার একমাত্র ছেলে ইন্দ্রনীল দাদি আরতি রায় (৮৩) এর সঙ্গেই দোতলায় থাকতেন। স্ত্রী তাপসীকে নিয়ে একতলায় থাকতেন বিশ্বজিত।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে, সোমবার ভোরের দিকে দোতলার ঘর থেকে ধুপধাপ আওয়াজ এবং চিৎকার শুনতে পান বিশ্বজিৎবাবু। সঙ্গে সঙ্গেই তিনি সিঁড়ি দিয়ে উপরে উঠে যান।

দোতলায় উঠতেই তার দিকে একটি ধারালো অস্ত্র নিয়ে এগিয়ে আসে ইন্দ্রনীল। সজোরে সেই খুপরি সে বসিয়ে দেয় বাঁ হাতে। বিশ্বজিৎবাবুর চিৎকার শুনে তাঁর স্ত্রী তাপসীদেবী উপরে ওঠেন। তাকেও আক্রমণ করে ছেলে।

Posted by Indranil Roy on Sunday, June 9, 2019



মন্তব্য চালু নেই