মেইন ম্যেনু

‘ফ্রান্সের ফাইনালে যাওয়াটা বিশ্বকাপের জন্য লজ্জা’

রাশিয়া বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে বেলজিয়ামকে ১-০ গোলে পরাজিত করে ফাইনালে উন্নীত ফ্রান্স। এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠল ফরাসিরা। প্রথমবার ১৯৯৮ সালে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ফ্রেঞ্চরা। দ্বিতীয়বার ২০০৬ সালে রানার্সআপ হয়েছিল তারা। ফের ফাইনালে সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

মঙ্গলবার ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে সেন্ট পিটার্সবার্গে মুখোমুখি হয় ফ্রান্স-বেলজিয়াম। দুদলই খেলার শুরু থেকে একের পর এক আক্রমণ চালিয়ে যায়। প্রথমার্ধে গোলের দেখা পায়নি কোনো দল। খেলার ৫১ মিনিটে আঁতোয়া গ্রিজম্যানের কর্নার থেকে দুরন্ত হেডে গোল নিশ্চিত করে ফ্রান্সকে রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে তুলে দেন স্যামুয়েল উমতিতি।

খেলা শেষে বেলজিয়ামের গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া বলেন, আমরা কোনও ভালো দলের কাছে হারিনি। এমন দলের কাছে হেরেছি যারা আমাদের থেকে খারাপ খেলেছে। তারা এগারোজন ফুটবলারকে গোলপোস্টের ৪০ গজের মধ্যে রেখে শুধু ডিফেন্স করে গেছে। আমরা একের পর এক আক্রমণ করেছি। ওরা শুধু সেগুলো সেভ করেছে। ফ্রান্সের জয় তাই ফুটবলের লজ্জা। ওদের বিপক্ষে আমাদের জিততে না পারাটা হতাশার।

বেলজিয়াম গোলরক্ষক নিজেদের সাফাই গাইলেও পরিসংখ্যান কিন্তু ভিন্ন কথা বলেছে। প্রথম সেমিফাইনালে বেলজিয়ামের দখলে ৬৪ শতাংশ বল থাকলেও বেশি শট নিয়েছে ফ্রান্স। তাদের ১৯টি শটের পরিবর্তে মাত্র ৯টি শট নেয় বেলজিয়াম।



মন্তব্য চালু নেই