মেইন ম্যেনু

‘বাংলাদেশের একটাই সমস্যা, ধারাবাহিকতার অভাব’

তিন দিনের সফরে বাংলাদেশে অবস্থান করছেন আইসিসির সভাপতি শশাঙ্ক মনোহর। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের আমন্ত্রণেই তার এই বাংলাদেশ সফর। শুক্রবার সন্ধ্যা বিপিএলের ফাইনাল দেখবেন তিনি।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে তার সম্মানে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বিসিবি। সেখানে ক্রিকেটের নিয়ে নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন শশাঙ্ক। উঠে আসে বাংলাদেশের প্রসঙ্গও।

আইসিসির সভাপতির দৃষ্টিতে বাংলাদেশ এখন যথেষ্ট শক্তিশালী দল। প্রথম সারির দলগুলোকে হারানোর সামর্থ্য রাখে টাইগাররা। কিন্তু শশাঙ্কের দৃষ্টিতে বাংলাদেশের সমস্যা ধারাবাহিকতার অভাব, ‘বাংলাদেশ এখন ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডকে হারাতে পারে। দলটার একটাই সমস্যা, ধারাবাহিকতার অভাব। এটা কাটিয়ে উঠতে পারলে তারা বিশ্বের শীর্ষ দলে পরিণত হতে পারবে।’

তবে টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে চিন্তিত শশাঙ্ক। তার দৃষ্টিতে মরে যাচ্ছে টেস্ট ক্রিকেট। বর্তমান সময়ে দীর্ঘ সংস্করণের খেলাটি মানুষকে টানতে পারছে না। তাই টেস্ট ক্রিকেটকে বাঁচাতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে আইসিসি। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ সেই উদ্যোগেরই অংশ।

আইসিসির আশা, চ্যাম্পিয়নশিপের মধ্যে দিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে মানুষের আগ্রহ তৈরি হতে পারে, ‘আমরা বোঝার চেষ্টা করছি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ নিয়ে মানুষের কেমন আগ্রহ তৈরি হয়। সত্যি কথা টেস্ট ক্রিকেট মরে যাচ্ছে। এই পরিস্থিতির উন্নতিতে আমরা উপায় বের করার চেষ্টা করছি। আইসিসির বোর্ড পরিচালকেরা একমত হয়েছেন যে যদি আমরা টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু করতে পারি, তাহলে এটা টেস্ট ক্রিকেট বাঁচিয়ে রাখতে পারবে এবং খেলাটার প্রতি মানুষের আরও আগ্রহ তৈরি করবে।’

এদিকে টেস্ট ক্রিকেটের বিপরীত অবস্থানে টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট। সংক্ষিপ্ত এই সংস্করণের জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়ছে। বিষয়টি নিয়ে আইসিসির সভাপতির বক্তব্য, ‘যদি আপনারা সম্প্রচারকারীদের টিআরপি দেখেন, টি–টুয়েন্টির টিআরপিই বেশি। কারণ, খেলাটা অল্প সময়ে শেষ হয়। এখনকার মানুষের পাঁচ দিনের টেস্ট ম্যাচ দেখার সময় নেই। সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সবাই যার যার কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকে। তাদের পক্ষে পুরোটা দিন ধরে খেলা দেখা কঠিন। টি–টুয়েন্টি সেখানে শেষ হয়ে যাচ্ছে সাড়ে তিন ঘণ্টায়। অনেকটা সিনেমা দেখার মতো। এ কারণেই টি–টুয়েন্টি খুব দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।’



মন্তব্য চালু নেই