মেইন ম্যেনু

বাজেট ঘোষণা ভারতে, পেট্রল-ডিজেলের দাম বৃদ্ধি

ভারতের ২০১৯-২০ অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণা করেছেন মোদি সরকারের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। তিনি দেশটির প্রথম পূর্ণ সময়ের মহিলা অর্থমন্ত্রী হিসেবে সংসদে বাজেট পেশ করেছেন।

৭২ বছরের ইতিহাস ভেঙে লাল ব্রিফকেস ছাড়াই এবার বাজেট নিয়ে এলেন নির্মলা। সংসদে একটি লাল ফাইল নিয়ে ঢোকেন এই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

বাজেট পেশ করতে গিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, এ বছরই তিন লাখ কোটি মার্কিন ডলারের অর্থনীতির দেশ হয়ে উঠবে ভারত। তিনি ঘোষণা করেন, ২০২২ সালের মধ্যে দেশের প্রত্যেক বাড়িতে পৌঁছে যাবে বিদ্যুৎ। পৌঁছে যাবে দূষণমুক্ত জ্বালানিও।

দেশের প্রথম মহিলা অর্থমন্ত্রীর বাজেট পেশ করার জন্য অভিনন্দন জানিয়েছেন স্পিকার ওম বিড়লা। ২ ঘণ্টা ১৫ মিনিটের বাজেট বক্তব্য শেষ করেন নির্মলা সীতারামন।

নতুন এই বাজেটে পেট্রল ও ডিজেলের দাম বেড়েছে। পাশাপাশি স্বর্ণ ও অন্যান্য মূল্যবান ধাতুর ক্ষেত্রেও শুল্ক বৃদ্ধি করা হয়েছে।

ইলেকট্রিক যানবাহনের ওপর থেকে আমদানি শুল্ক তুলে নেওয়া হয়েছে। পাম তেলসহ অন্যান্য জিনিস যা আগে আমদানি করা হতো কিন্তু এখন দেশে তৈরি হয় তার ওপর করছাড় তুলে নেওয়া হয়েছে।

বিদেশ থেকে আমদানি করা অস্ত্রের ক্ষেত্রে করছাড় দেওয়া হয়েছে। পাঁচ লাখ টাকা পর্যন্ত আয়ে কর দিতে হবে না। এছাড়া দোকানদার ও রিটেল ব্যবসায়ীদের জন্যও সুখবর রয়েছে। নতুন একটি প্রকল্পের আওতায় উপকৃত হবেন ৩ কোটি ব্যবসায়ী।

তবে এই প্রকল্পের আওতায় পড়বেন সেইসব ব্যবসায়ী যাদের বার্ষিক লেনদেনের পরিমাণ দেড় কোটি রুপি। এছাড়া জিএসটি রেজিস্টার্ড মাইক্রো, মিডিয়াম ও স্মল এন্টারপ্রাইজের ক্ষেত্রে লোন পরিকাঠামোয় ব্যাপক পরিবর্তনের কথা ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন, এবার থেকে মাত্র ৫৯ মিনিটের মধ্যে ১ কোটি টাকা পর্যন্ত লোনের অনুমোদন মিলবে। একই সঙ্গে লোনের সুদে ২ শতাংশ ছাড় পাবেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা।

অপরদিকে ২০২৪ সালের মধ্যে ভারতের প্রত্যেক বাড়িতে খাবার পানি পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে জল জীবন মিশন হাতে নেয়া হয়েছে। এই মিশনে সাফল্যের লক্ষ্যে জলশক্তি মন্ত্রণালয় নামে নতুন মন্ত্রণালয় গঠন করেছে ভারত। বাজেটে এই প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী।

চলতি বছরের বাজেটে প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ বাড়ানোর উপর বিশেষ জোর দিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। সংবাদমাধ্যম, বিমান পরিষেবা, বিমা ও সিঙ্গেল ব্র্যান্ড রিটেলে প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ (এফডিআই)-এর নীতি আরও সরলীকরণ করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বাজেটে।

কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী জানান, ২০১৮-১৯ সালে প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ বেড়েছে ৬ শতাংশ। তিনি বলেন, আমার প্রস্তাব, ভারতে আরও প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ আসুক। তাই বিমান, মিডিয়া, বিমায় আরও বেশি পরিমাণ এফডিআই-এর দরজা খুলে দেবে কেন্দ্র।



মন্তব্য চালু নেই