মেইন ম্যেনু

বাবা কি মেয়েকে স্পর্শ করতে পারেন না, প্রশ্ন হানিপ্রীতের

ভারতের বিতর্কীত ধর্মগুরু বাবা রাম রহিমের সঙ্গে তার পালিত মেয়ে হনিপ্রীতের সম্পর্ক ঠিক কেমন ছিল? এ নিয়ে নানা জল্পনা চলছে। তাদের সম্পর্ক নিয়ে দেশটির জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাখি সাবন্ত বলেন, তাদের দু’জনের সম্পর্ক ছিল সমাজের আড়ালে মাখামাখি।

হরিয়ানার স্বঘোষিত আধ্যাত্মিক ধর্মগুরু গুরমিত সিং রাম রহিম তার দুই সাধীকে ধর্ষণের দায়ে জেলে ২০ বছরের সাজা ভোগ করছেন। ‘বাবা’র সাজা হওয়ার পর থেকেই গা ঢাকা দিয়েছেন তার ‘দত্তক কন্যা’ হানিপ্রীত ইনসান। হানিপ্রীত ও রাম রহিমের বিরুদ্ধেও অভিযোগ ওঠে তাদের মধ্যে অবৈধ সম্পর্ক ছিল।

এ বিষয়ে হানিপ্রীত প্রশ্ন রেখেছেন, ভালোবেসে একজন বাবা কী তার কন্যাকে স্পর্শ করতে পারেন না? সম্প্রতি ভারতীয় একটি টেলিভিশন চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দেয়ার সময় রাম রহিমের এই পালিত কন্যা এমন প্রশ্নই করেছেন।

এর আগে ২২ সেপ্টেম্বর হানিপ্রীতের প্রাক্তন স্বামী বিশ্বাস গুপ্ত সংবাদমাধ্যমগুলোর সামনে প্রকাশ্যে জানিয়েছেন, হানিপ্রীত ও ‘বাবা’র মধ্যে কোনো বাবা-মেয়ের সম্পর্ক ছিল না।

তিনি আরও জানান, তিনি নিজ চোখে রাম রহিম আর হানিপ্রীতকে অবৈধ সম্পর্কে লিপ্ত অবস্থায় দেখেছেন। তিনি বলেন, ‘বাবা এবং হানিপ্রীত নগ্ন অবস্থায় এক রুমে ছিলেন’।

এ বিষয়ে হানিপ্রীতের প্রশ্ন কেন একজন বাবা ও মেয়ের সম্পর্ককে কেন্দ্র করে এ ধরনের কথা উঠছে। কন্যাকে বাবা ভালোবাসতেই পারে। ভালোবেসে বাবা তার মেয়েকে স্পর্শ করতেই পারে।

এ সময় হানিপ্রীত অভিযোগ করেন বাবা-মেয়ের পবিত্র সম্পর্কের বিরুদ্ধে অশ্লীল কথা প্রচার করছে একটি দল।

উল্লেখ্য, দুইজন ভক্তকে ধর্ষণের দায়ে ২০০২ সালে হওয়া মামলায় ১০ বছর করে মোট ২০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে রাম রহিমকে। একইসঙ্গে ৩০ লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে।

এর আগে ২৫ আগস্ট শুক্রবার দোষী সাব্যস্ত করে রায় দেওয়া হলে নিরাপত্তাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায় রাম রহিম সিংয়ের ভক্তরা। এতে প্রায় ৩৬ জন নিহত হয়। সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া






মন্তব্য চালু নেই