মেইন ম্যেনু

বিকল্পধারায় ভাঙন, অব্যাহতি পাচ্ছেন বাপ-বেটা!

ভোট ঘিরে জোটের রাজনীতি নাটকীয় মোড় নিচ্ছে। এবার ভেঙে যাচ্ছে সাবেক রাষ্ট্রপতি ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন বিকল্পধারা বাংলাদেশ।

বিকল্পধারার অন্য অংশ এ উপলক্ষ্যে শুক্রবার সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন ডেকেছে।

জানা গেছে, সংবাদ সম্মেলন থেকে বিকল্পধারার প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, মহাসচিব মেজর (অব.) এমেএ মান্নান, যুগ্ম-মহাসচিব মাহী. বি চৌধুরীসহ বেশ কয়েকজন সিনিয়র নেতাকে অব্যাহতি দেয়া হবে।

বিকল্পধারা থেকে সদ্য বহিষ্কৃত সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট শাহ আহাম্মেদ বাদল এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘বিকল্পধারায় গণতান্ত্রিক রাজনীতির চর্চা নেই। দল বাপ-বেটার কাছে জিম্মি। এজন্য বৃহত্তর গণতান্ত্রিক রাজনীতির স্বার্থে বি. চৌধুরী, মেজর (অব.) মান্নান ও মাহী. বি. চৌধুরীকে অব্যাহতি দেয়া হচ্ছে।’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে বিকল্পধারার ছিটকে পড়ার জন্য মাহীকে দায়ী করেন বাদল। তিনি বলেন, ‘জাতির ক্রান্তিকালে জাতীয় ঐক্য নিয়ে আমরা দীর্ঘদিন কাজ করেছি। কিন্তু, শেষ মুহূর্তে মাহী বি. চৌধুরীর নাটকের কাছে সব ভেস্তে গেছে।’

এক প্রশ্নের জবাবে বাদল বলেন, ‘বিকল্পধারার বৈধতা বি. চৌধুরীর হাতে নেই। এর প্রকৃত মালিকই এখন দায়িত্ব নিবেন।’

ওই নেতার নাম না বললেও তিনি জানান, সংবাদ সম্মেলন থেকে এ বিষয়ে সব ডকুমেন্ট উপস্থাপন করা হবে। তারপর জনগণই দেখতে পাবেন, দলটির মালিকানা আসলে কার?

বিকল্পধারা সূত্রে জানা গেছে, অব্যাহতি দেয়ার পর বিকল্পধারার নেতৃত্ব আনা হচ্ছে দীর্ঘদিন দলের সিনিয়র সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করা এক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষককে। আর মহাসচিব পদে থাকবেন শাহ আহম্মেদ বাদল।

এর আগে গত ১৩ অক্টোবর সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী প্রেসসচিব জাহাঙ্গীর আলম জানান, দলের শৃঙ্খলাবিরোধী কাজ করায় বিকল্পধারার দুই কেন্দ্রীয় নেতাকে দল থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। তারা হলেন, বিকল্পধারার সহ-সভাপ‌তি অ্যাডভোকেট শাহ আহাম্মেদ বাদল ও কৃ‌ষিবিষয়ক সম্পাদক জানে আলম হাওলাদার।

জাহাঙ্গীর আলম জানান, গত ১৬ সেপ্টেম্বর এই দুই নেতার প্রাথ‌মিক সদস্য পদ স্থ‌গিত করে সতর্ক করা হয়। বিকল্পধারার মহাস‌চিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান দলের গঠনতন্ত্রের অনুচ্ছেদ ৫ এর ৫:২ গ ধারা অনুযায়ী চূড়ান্তভাবে তাদের দল থেকে বহিষ্কার করেন।



মন্তব্য চালু নেই