মেইন ম্যেনু

বিকেলে আটক রাতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ইউপি সদস্য নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফে বিকেলে আটকের পর পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে আব্দুল হামিদ প্রকাশ হামিদ ডাকাত (৪৫) নামে এক ইউপি সদস্য নিহত হয়েছেন।

পুলিশের দাবি, নিহত ইউপি সদস্য বহু মামলার পলাতক আসামি, চিহ্নিত ডাকাত ও মাদক কারবারি। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় মাদক, হত্যা, মানবপাচার ও অস্ত্রসহ ডজন খানিক মামলা রয়েছে।

আজ মঙ্গলবার ভোর রাতে উপজেলার টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মহেষখালী পাড়া নৌঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে চারটি দেশীয় তৈরি এলজি, ১৭ রাউন্ড কার্তুজ, ২১ রাউন্ড গুলির খোসা ও ৬ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহত হামিদ টেকনাফ সদরের মহেষখালীয়া পাড়া এলাকার বাসিন্দা। তিনি টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান, সোমবার বিকেলে গোপন সংবাদে পুলিশের এসআই সুজিত চন্দ্র দে সহ একদল পুলিশ মহেষখালী পাড়া বাজার এলাকা থেকে ইউপি সদস্য হামিদকে আটক করে।

পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে ওই এলাকায় তার আস্তানায় অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। বেশ কিছুক্ষণ গুলিবিনিময়ের পর ইয়াবা কারবারিরা পালিয়ে যায়।

পরে ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, গুলি ও ইয়াবাসহ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হামিদকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান থেকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন।

নিহত মাদক ব্যবসায়ীর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনি প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান প্রদীপ কুমার দাশ।



মন্তব্য চালু নেই