মেইন ম্যেনু

বিদেশের সিনেমা হলে দর্শক মাতাচ্ছে হালদা

এশিয়ার বৃহত্তম প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন কেন্দ্র হালদা নদী ও এর আশেপাশের মানুষের জীবনের গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে ‘হালদা’ ছবিটি। গেল ১ ডিসেম্বর দেশব্যাপী ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। মুক্তির পর সিনেমাপ্রেমীরা দারুণভাবে গ্রহণ করেছে তৌকীর আহমেদ পরিচালিত এই ছবিটি।

বাংলাদেশ ছাড়াও ৮ ডিসেম্বর বিশ্বে মুক্তির প্রথম সপ্তাহে কানাডা, আমেরিকা, আরব আমিরাতে ১৩টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছিলো হালদা। সেখানে রেকর্ড ২৪৭টি শো পেয়েছে ছবিটি। সেই ধারাবাহিকতায় ১৫ ডিসেম্বর ওমানে ৪টি হলে আর ১৯ জানুয়ারি কানাডার আরো ৪টি হলে মুক্তি পাচ্ছে হালদা। হালদা ছবির আন্তর্জাতিক পরিবেশক সংস্থা স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো ইনক’র প্রেসিডেন্ট মো. অলিউল্লাহ সজিব

এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। এর ফলে বিশ্ব বাজারে সব মিলিয়ে ২১টি হলে মুক্তি পাবে ছবিটি। সামনে আরও বেশ কিছু সিনেমা হলে ছবিটি মুক্তি পাবে।

তিনি বলেন, ‘আয়নাবাজি ও ঢাকা অ্যাটাকের পর ‘হালদা’ ছবিটিও ঝড় তুলেছে বিদেশে বাস করা বাংলাদেশি দর্শকের মনে। তবে গল্প, তারকা ও নির্মাণের মুন্সিয়ানায় ‘হালদা’ নিয়ে প্রশংসা বেশিই শোনা যাচ্ছে। সবাই এমন চমৎকার একটি গল্পের ছবির জন্য তৌকীর আহমেদকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। অভিনন্দিত করেছেন ছবির অভিনয়শিল্পী জাহিদ হাসান, তিশা, মোশাররফ করিম, ফজলুর রহমান বাবু, দিলারা জামান, রুনা খান, মোমেনা চৌধুরীকে। দর্শক পছন্দ করেছেন ছবিটির সংগীতও। তারা পিন্টু ঘোষের অনেক প্রশংসা করছেন। এটা বিশ্ব বাজারে দেশি সিনেমার বাজার সৃষ্টির দারুণ অনুপ্রেরণা হতে যাচ্ছে।’

এদিকে স্বপ্ন স্কেয়ারক্র’র বাংলাদেশ বিভাগের চিফ এক্সিকিউটিভ সৈকত সালাহউদ্দিন বলেন, ‘ওমানে মুক্তি ও কানাডায় দ্বিতীয় সপ্তাহে পদার্পণ উপলক্ষে ১৫ ডিসেম্বর শুক্রবার বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে ফেসবুক লাইভে থাকবেন গমগম ও হালদার গানের স্রষ্টা পিন্টু ঘোষ। লাইভ হবে Release of Bangla Movies in Canada ও বাংলা চলচ্চিত্র এখন মধ্যপ্রাচ্যে . Bangla Movies in GCC Countries পেজ-এ স্বপ্ন স্কেয়ারক্রো বাংলাদেশ অফিস থেকে।



মন্তব্য চালু নেই