মেইন ম্যেনু

বিশ্বকাপের পর ক্রিকেট থেকে বিদায় নেবেন মাশরাফি

ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও টেস্ট ক্রিকেট সেভাবে লেখতে পারেননি মাশরাফি বিন মুর্তজা। ২০১৭ সালের এপ্রিলে কলম্বোয় হঠাৎ করেই ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাট টি-টোয়েন্টি থেকে বিদায় নেন। ওয়ানডে খেলে যাওয়া বাংলাদেশের অন্যতম সেরা এই অধিনায়ক, আগামী বিশ্বকাপের পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নেবেন।

ক্রিকেট মাঠ থেকে রাজনীতির মাঠে পা দিয়েছেন মাশরাফি। আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নড়াইল-২ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপত্র কিনেছেন মাশরাফি। মঙ্গলবার মিরপুরে নির্বাচন-সংক্রান্ত এক সংবাদ সম্মেলন করেন ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’ খ্যাত এই পেসার।

আগামী জুন-জুলাইয়ে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপ খেলে ক্রিকেট থেকে অবসরে যাওয়ার ইঙ্গিত বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের এই অধিনায়ক বলেন, ‘প্রথমত আমার লক্ষ্য বিশ্বকাপ। যেভাবে খেলে এসেছি, বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত আগামী আট মাস ওইভাবে খেলার চেষ্টা করব। আমার পারসোনাল গোলও ছিল বিশ্বকাপ।’

২০১১ সালে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের ঠিক আগমুহূর্তে ইনজুরিতে আক্রান্ত হন মাশরাফি। চোটাক্রান্ত হওয়ার কারণে বিশ্বকাপে অংশ নিতে পারেননি তিনি। এ নিয়ে মাশরাফি বলেন, ‘২০১১ বিশ্বকাপের পর আপনাদের অনেকেই মনে করেছিল আমার ক্যারিয়ার শেষ। আল্লাহর রহমতে আরও সাত বছর খেলতে পেরেছি।’

২০০১ সালে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হওয়া মাশরাফি খেলেন ২০০৯ সালের জুলাই পর্যন্ত। এরপর ইনজুরির কারণে সাদা পোশাকের ক্রিকেটে আর ফেরা হয়নি তার। টেস্ট থেকে অবসর নেয়া প্রসঙ্গে ৩৬ টেস্টে ৭৮ উইকেট শিকার করা মাশরাফি বলেন, ‘টেস্ট তো আট বছর ধরে খেলছি না। টেস্ট থেকে অবসরের ব্যাপারে এমনিই বলে দেব।’



মন্তব্য চালু নেই