মেইন ম্যেনু

বিশ্বের যে ১০ দেশে পানির চেয়েও পেট্রলের দাম কম

বর্তমান আধুনিক সভ্যতাকে বলা হয় জীবাশ্ম জ্বালানিভিত্তিক সভ্যতা। কারণ মাটির নিচের খনি থেকে তোলা জীবাশ্ম জ্বালানি- পেট্রল, ডিজেল, গ্যাস, কয়লা ছাড়া যে আধুনিকতার কোনো ইঞ্জিনই চলবে না।

বিদ্যুৎ বা শক্তি উৎপাদনও করা যাবে না। এর মধ্যে সবচেয়ে দামি জ্বালানির একটি পেট্রল। অথচ সেই পেট্রলই কিছু দেশে পানির চেয়েও কম দামে পাওয়া যায়।

১. ভেনেজুয়েলা : দেশটিতে এখন মাত্র ০.০৩১ মার্কিন ডলারে ২.৫৫ টাকায় এক লিটার পেট্রল পাওয়া যায়। দেশটির অর্থনীতির ৫০% নির্ভর পেট্রল বেচার টাকার ওপর।

২. সৌদি আরব : দেশটি বিশ্বের সবচেয়ে বেশি খনিজ তেল উৎপাদনকারী এবং সবচেয়ে বেশি পেট্রল রপ্তানিকারক দেশ হিসেবে খ্যাত। সৌদি আরবে প্রতি লিটার পেট্রল বিক্রি হয় মাত্র ৭.৮৯ টাকায়।

৩. লিবিয়া : বিশ্বের নবম বৃহত্তম পেট্রল উৎপাদক দেশ লিবিয়া। দেশটিকে এক লিটার পেট্রল পাওয়া যায় ৯.০৪ টাকায়।

৪. তুর্কমেনিস্তান : দেশটির মানুষরা প্রতিমাসে জনপ্রতি ১২০ লিটার পেট্রল বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু দেশটিতে পেট্রলের দাম নির্ধারিত নয়। ১২০ লিটারের বেশি দরকার হলে প্রতি লিটারে ১২ টাকা করে দিতে হয়।

৫. বাহরাইন : পঞ্চম বৃহত্তম তেল উৎপাদক দেশ এটি। এখানে প্রতি লিটার পেট্রলের দাম ১২.৯৮ টাকা।

৬. কুয়েত : বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম তেলের রিজার্ভ রয়েছে এদেশে। প্রায় ১০ হাজার ৪০০ কোটি ব্যারেল তেল মজুদ আছে দেশটিতে। প্রতি লিটার পেট্রলের গড় মূল্য ১৪.০৫ টাকা। আর খুচরা মূল্য ১২.৪১ টাকা।

৭. কাতার : তেল উৎপাদনের দিক থেকে সপ্তম বৃহত্তম দেশ কাতার। দেশটির আয়ের প্রধান উৎসও তেল। ১৫০০ কোটি ব্যারেল তেলের মজুদ আছে দেশটিতে। প্রতি লিটার পেট্রলের দাম ১৪.৯৬ টাকা।

৮. মিশর : দেশটির সুয়েজ খাল দিয়ে প্রতিদিন ১০০ কোটি লিটার পেট্রল পারস্য উপসাগর থেকে ইউরোপের দিকে যায়। দেশটিতে প্রতি লিটার পেট্রলের দাম ১৯.০৬ টাকা। তবে রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের কারণে পেট্রলের দাম ওঠা-নামা করে।

৯. ওমান : দেশটি প্রতিদিন ৬ লাখ ব্যারেল পেট্রল উৎপাদন করে। দেশটিতে প্রতি লিটার পেট্রলের দাম ১৯.৯৭ টাকা।

১০. আলজেরিয়া : আফ্রিকার বৃহত্তম তেল উৎপাদক। এবং বিশ্বের ১০ম বৃহত্তম তেল উৎপাদক। প্রতিদিন ১২ লাখ ব্যারেল তেল উৎপাদন করে দেশটি। দেশটির আয়ের ৬০% আসে তেল থেকে। প্রতি লিটার পেট্রলের দাম ২০.০৫ টাকা।






মন্তব্য চালু নেই