মেইন ম্যেনু

ভারতকে গুঁড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে নিউজিল্যান্ড

বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ২৪০ রানের লক্ষে ব্যাট করতে নেমে পরাজিত হয়েছে ভারত। প্রথম দল হিসেবে ফাইনালে চলে গেল নিউজিল্যান্ড।

চার বল বাকি থাকতেই গুটিয়ে যায় ভারতের ইনিংস। ২৪০ রানের লক্ষে খেলতে নেমে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২২১ রান করে ভারতীয়রা।

১০৪ বলে ধোনি-জাদেজার ১১৬ রানের জুটিতে নিশ্চিত জয়ের পথে চলে এসেছিল ভারত। কিন্তু ট্রেন্ট বোল্টের বলে ক্যাচ দিয়ে জাদেজা আউট হয়ে যাওয়ার পর আবারও সংকটে পড়ে ভারত।

ভারতের শেষ আশা ছিলেন গ্রেট ফিনিশার মহেন্দ্র সিং ধোনি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত রানআউটের দুর্ভাগ্যের শিকার হয়ে গেলেন তিনি। মার্টিন গাপটিলের সরাসরি থ্রোতে রানআউটের শিকার হয়ে ফিরে যান মহেন্দ্র সিং ধোনি। শেষ পর্যন্ত টান টান উত্তেজনার এই ম্যাচটিতে ভারতকে ১৮ রানে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে উঠলো নিউজিল্যান্ড।

বৃষ্টি বিঘ্নিত খেলার রিজার্ভ ডেতে বুধবার (১০ জুলাই) বাকি ইনিংস খেলতে নেমে বেশিদুর এগোতে পারেনি নিউজিল্যান্ড। প্রথম দিনের মতো আজও শেষের ৪ ওভার স্বচ্ছন্দে ছিল না কিউই ব্যাটসম্যানরা। ফলাফল নির্দিষ্ট ৫০ ওভার শেষে ৮ উইকেটে ২৩৯ রানের সামান্য পুঁজি পায় তারা।

এ রান ভারতের ব্যাটিং লাইনের সামনে কিছুই ছিলনা। কিন্তু ২৪০ রান তাড়া করতে নেমে শুরুতেই বালির বাঁধের মতো ধসে পড়ে ভারতের ব্যাটিং লাইন আপ। ৬ রানে তারা হারায় তিনটি বড় উইকেট। রোহিত শর্মা, লোকেশ রাহুল, বিরাট কোহলি ফিরে যান ১ রান করে। তিন উইকেট হারিয়ে বিপর্যস্ত ভারতের হাল ধরেন দিনেশ কার্তিক ও ঋষভ পান্ত। ম্যাট হ্যানরি সে মুহূর্তে আবারো দিনেশকে তুলে নিলে আরো বিপদে পড়ে যায় ভারত।

এরপর হার্দিক পান্ডিয়াকে নিয়ে ঋষভ পান্ত কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তুললেও শেষ পর্যন্ত বড় ইনিংস খেলতে পারেন নি এই জুটি। ভারতের ব্যাটিং ধসের মাঝেই ইনিংস সেরা ৪৭ রানের জুটি গড়েছিলেন এই দুজন। তবে দুজনই শিকার হলেন মিচেল স্যান্টনারের। ৭১ রানে ৫ নম্বর ব্যাটসম্যান হিসেবে ফিরে যান ঋষভ পান্ত। তারপর ৯২ রানের মাথায় ৬ নম্বর উইকেট হিসেবে সাজঘরে ফিরে যান হার্দিক পান্ডিয়াও।

মহেন্দ্র সি ধোনির সঙ্গে ১১৬ রানের জুটি বিচ্ছিন্ন করে স্বস্তি ফেরান ট্রেন্ট বোল্ট। ৫৯ বলে চারটি করে চার ও ছয়ে ৭৭ রান করে কেন উইলিয়ামসনের ক্যাচ হন জাদেজা। পরে ধোনির উইকেট পতনের সাথে সাথে পর্দা নামে ভারতের স্বপ্নে।

মঙ্গলবার (০৯ জুলাই) শুরুতে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। নক-আউট পর্বে এসে প্রথম সেমিফাইনালে ভারতের মুখোমুখি তারা।



মন্তব্য চালু নেই