মেইন ম্যেনু

মঙ্গল শোভাযাত্রা প্রতিহতের ঘোষণা কওমি শিক্ষার্থীদের

পহেলা বৈশাখের মঙ্গল শোভাযাত্রা প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়র কওমি ছাত্র ঐক্য পরিষদ। পহেলা বৈশাখের দিন ফজরের নামাজের পর মঙ্গল শোভাযাত্রা নিয়ে রাস্তায় নামলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তারা।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) বিকেল পৌনে ছয়টার দিকে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে এই ঘোষণা দিয়েছে সংগঠনের নেতারা।

জেলা শহরের কান্দিপাড়ার জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদরাসার সামনে থেকে কওমি ছাত্র ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়।

মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক টি এ রোড প্রদক্ষিণ শেষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ করে। এতে পহেলা বৈশাখে বের করা মঙ্গল শোভাযাত্রাকে ‘নগ্নযাত্রা’ উল্লেখ করে সেটি বন্ধের দাবি জানায় কওমি ছাত্র ঐক্য পরিষদ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, পহেলা বৈশাখ হিন্দুদের সংস্কৃতি। এটাকে বাঙালি সংস্কৃতি বলা যাবে না। যদি হিন্দুরা পহেলা বৈশাখ পালন করতে চায় তাহলে আমাদের কোনো বাধা-নিষেধ নেই। কিন্তু পহেলা বৈশাখে মঙ্গল শোভাযাত্রার নামে নগ্নযাত্রা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চলবে না। বাংলাদেশের ৯০ শতাংশ মানুষ মুসলমান। আমরা আশা করব সরকারের শুভবুদ্ধির উদয় হবে এবং মঙ্গল শোভাযাত্রা বন্ধ করবে।

সভায় বক্তব্য দেন, কওমি ছাত্র ঐক্য পরিষদ নেতা মাওলানা আনাস সরকার, মাওলানা ইসহাক আল মামুন, মাওলানা মো. ওয়ালিউল্লা প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পহেলা বৈশাখ পালনে দিনভর নানা আয়োজন করেছে জেলা প্রশাসন। সকাল সাড়ে সাতটায় আনন্দ শোভাযাত্রা দিয়ে শুরু হবে প্রশাসনের কর্মসূচি। এরপর রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, পুতুল নাচ, লাঠি খেলা ও বৈশাখী মেলা।



মন্তব্য চালু নেই