মেইন ম্যেনু

মাশরাফী কি বিশ্বকাপে নিজের খেলা নিয়ে সন্তুষ্ট

মাশরাফী বিন মোত্তর্জা বাংলাদেশের অন্যতম সেরা বোলার, এখনো পর্যন্ত ওয়ানডে ফরম্যাটে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী মাশরাফী। বাংলাদেশের অধিনায়ক হওয়ার পর তিনি নিয়মিত জাতীয় দলে খেলছেন।

কিন্তু একটা কথা প্রায়শই শোনা যায় যে মাশরাফী “নন-প্লেয়িং ক্যাপটেইন”।

সাম্প্রতিক সময়ে একটি টক-শোতে ভারতের সাবেক পেস বোলার অজিত আগারকার প্রশ্ন তোলেন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা বাংলাদেশ দল থেকে নিজেকে সরাবেন কি না।

আগারকার বলেন, ” বাংলাদেশ একাদশে রুবেলের সুযোগ পাওয়া উচিত। আমি জানি তাদের জন্য মাশরাফিকে বাদ দেওয়া কঠিন, কিন্তু আপনি যদি এই বিশ্বকাপে তার ফর্ম দেখেন, আমি মনে করি তিনি একাদশে সুযোগ পান না।”

আগারকার মূলত বলেন যে বাংলাদেশের ব্যাটিং নিয়ে এখন চিন্তা নেই, মূল সমস্যা এখন বাংলাদেশের বোলিং।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জনি বেয়ারস্টোর উইকেট পাওয়ার আগে শেষ চার ম্যাচেই কোনো উইকেট পাননি মাশরাফী।

ক্যারিয়ারে নানা উত্থান-পতন কাটিয়ে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা প্রায় ১৮ বছর ধরে বাংলাদেশের জাতীয় ক্রিকেট দলের হয়ে খেলে যাচ্ছেন।

পুরো ক্যারিয়ারজুড়ে মাশরাফীর অন্যতম বড় প্রতিবন্ধকতা ছিল ইনজুরি।

নিজের খেলা নিয়ে মাশরাফী কি বলছেন?

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশি ও শ্রীলঙ্কার উভয় দেশের সাংবাদিকরাই মাশরাফীকে এই প্রশ্ন করেন যে ক্রিকেটার মাশরাফী নিয়ে কতটা সন্তুষ্ট তিনি নিজে?

মাশরাফী বেশ সাবলীলভাবেই সেসব প্রশ্নের মোকাবেলা করেন।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তুলনামূলক ভালো বল করেন মাশরাফী, “শেষ ম্যাচে আমার প্রয়োজন ছিল আমি ১০ ওভার করেছি, খারাপ সময় ভালো সময় আসে, দিন শেষে একেকজন একেকভাবে প্রকাশ করে।”

তবে প্রথম দুই ম্যাচের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৬ ওভারে ৪৯ রান দেন বিনা উইকেটে।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে, ৫ ওভার বল করে ৩২ রান দেন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।

“আমি নিজেও আমার কাছে আরো বেশি প্রত্যাশা করি, আমি নিজের কাছে মনে করি আমি আমার সেরাটা দিতে পারিনি।”

আরেকটি প্রশ্ন ছিল মাশরাফী কেন নিজের কোটার বোলিং শেষ করেননি দুই ম্যাচে।

মাশরাফী বলেন, “ক্যারিয়ারে আমার অনেক হয়েছে যে আমি পুরো ১০ ওভার বল করিনি, সেটা দলের প্রয়োজনে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সৈকত ভালো বল করছিল তাই আমি আর বোলিং করিনি।”

“প্রথম দুই ম্যাচে আমি উইকেটের মান অনুযায়ী খেলতে পারিনি আমি চেষ্টা করছি আরো ভালো করার।”

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১০ ওভারে ৬৮ রান দিয়ে একটি উইকেট নেন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।

কিন্তু আদৌ কি মাশরাফী শুধু অধিনায়ক হিসেবে খেলে গিয়েছেন ২০১৪ সাল থেকে?

২০১৫ সাল থেকে বাংলাদেশের সর্বশেষ ম্যাচ পর্যন্ত মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী।

মুস্তাফিজুর রহমানের চেয়ে মাত্র চার উইকেট কম পেয়েছেন তিনি। আধুনিক ক্রিকেটের সাথে সামঞ্জস্য রেখে ইকোনমি রেটও মানানসই, ৫.২০।



মন্তব্য চালু নেই