মেইন ম্যেনু

মা || এইচ. এম নুর আলম

মা
এইচ. এম নুর আলম


এক হরফের ‘মা’ মধু নাম সদাই মধুর লাগে
এই নামে তো শুধুই মধু, প্রাণ জুড়ানো বাগে।
মা কথাটি উচ্চারণে মনে উছল পুলক—!
এই কথাটির নেই তুলনা, হয়না সমান ভূলোক।

রাত-বিরাতে মা যে শুধু তোমার কথাই স্মরে
মায়ের মুখটি হেরলে হিয়ায় তৃপ্তি সুধা ভরে।
মা যে আমার চোখের মনি, শুধুই সোনার ধন
এই ধরাতে মা যে সবার অমূল্য রতন।

সন্তানেরই সাফল্যে মা’র গরবে ভরে বুক-
পায় খুঁজে মা হিয়ার মাঝে ধরার শান্তি-সুখ।
সকল ব্যথা, সকল কষ্ট নিমিষেই মা ভোলে-
আদর করে, চুমু দিয়ে, নেয় যে বুকে তুলে।

সকল চিন্তা সকল ভাবনা ভাবে মা’য়ে শুধু
নাম কুড়াবে, যশ কুড়াবে, বড় হবে যাদু।
চায়না টাকা, চায় না ধন, চায় যে সন্তান-
হবে বড়, ভালো মানুষ- জাতির মহাত্রাণ।

একটু যদি যাদুর শরীর আহা খারাপ করে-
চিন্তাতে মা খায় নাকো ভাত, শুধুই খোদায় স্মরে
সন্তান তার যাদু- মনি, খোদার সেরা ধন-
বুকের মানিক, চোখের মনি, বেঁচে থাকার প্রাণ।

শত দোষে, শত মিছায়, সন্তান যদি দোষী হয়-
মায়ের কাছে, তবু সোনা, দোষটি বড় নয়।
মায়ের কাছে তুমি শুধু নাড়ী ছেঁড়া ধন-
পৃথিবীর সব মায়েরই মায়া এক সমান।

মায়ের ব্যথা, মায়ের কষ্ট, যায় নাকো ভাই বোঝা
মা ছাড়া তার দুঃখ- বেদন, যায়না কভু খোঁজা-।
বাবার দুঃখ, যায় না বোঝা, বাবা না হলে-
যায় না বোঝা, মায়ের দুঃখ, জননী না হলে।

যায় না মাকো কভু ভোলে আপন সন্তানে-
যায় যে ভুলে, সেই মাতাকে ঐ সে সন্তানে।
হয় যে পন্ড, বৃথাই শুধু বাব-মায়ের পরিশ্রম
শেষকালেতে হয় যে জায়গা হায়রে বৃদ্ধাশ্রম!

মায়ের আঁচল সবচে’ বড়, নিরাপদ আশ্রয়-
গভীর রাতেও তোমার জন্য দরজা খোলা রয়।
ভালবাসা- স্নেহ-মায়া, আত্মারই বন্ধন–
বেঁচে থাকার জন্য তুমি মায়ের স্পন্দন।

সন্তানেরই ফেরার পথে সদাই চেয়ে রয়-
সেই সন্তানই বড় হয়ে, মাকে ভুলে যায়।
যায়না বিচার করা মায়ের, হয় না তালাক ভাই
সৃষ্টি জুড়ে মায়ের মত কেহ কোথাও নাই-।



মন্তব্য চালু নেই