মেইন ম্যেনু

মেধাবীরা গালি দেন বেশি!

মেধাবীরা বরাবরই ভিন্ন মাত্রার মানসিকতার হয়ে থাকেন। তারা ব্যক্তিজীবনে বুদ্ধিমান, সৎ, কর্মঠ, নীতিবান হয়ে থাকেন। ফলে তাদের মানসিকতার পরিপন্থী কিছু দেখলেই বা শুনলেই তারা ক্ষেপে যান। মনের জাল মেটান গালি দিয়ে।

তাই তো বলা হচ্ছে- মেধাবীরা কথায় কথায় গালি দেন। শুধু তা-ই নয়, অন্যদের তুলনায় একটু বেশিই গালি দেন। সেজন্য বেশ দুর্নামও হয় তাদের। গবেষকরা দাবি করছেন, অন্যদের থেকে বেশি বুদ্ধিমান ও সৎ লোকেরা বেশি গালি দেন।

গবেষকদের দাবি, বুদ্ধিমান ও মেধাবীরা কিছুটা অগোছালো হন। নিজের মত বা ভাবনাকে সুপ্রতিষ্ঠিত করতেও তারা অশালীন শব্দ ব্যবহার করেন। এ ধরনের শব্দ প্রয়োগে তাদের ভাষার প্রবাহ ও শব্দকোষের দখল প্রতিফলিত হয়।

গবেষকরা জানান, আইকিউ বা বুদ্ধিমত্তা যাদের বেশি, তারা রাতে বেশি সক্রিয় থাকেন। ফলে গভীর রাত পর্যন্ত জেগে থাকেন। যাদের আইকিউ ৭৫ বা তার কম, তারা রাত ১১.৪১ মিনিটের মধ্যে ঘুমিয়ে পড়েন। যাদের আইকিউ ১২৩ বা তার বেশি তারা রাত ১২.৩০ মিনিটের পরেও জেগে থাকেন।

গবেষণায় তাদের স্মার্ট বলা হয়েছে। এ ধরনের মানুষ পরিস্থিতি পাল্টানোর সঙ্গে সঙ্গে নিজের দক্ষতা বাড়াতে পারেন। সমস্যা সমাধানে এদের বিশেষ উত্সাহ দেখা যায়। তাদের দৃষ্টিভঙ্গির বাইরে কিছু দেখলেই তারা ক্ষেপে যান।

গবেষকরা বলছেন, ‘প্রকৃত বুদ্ধিমান মানুষ সব কিছু মারাত্মকভাবে দেখেন। যে কোনো পরিস্থিতি থেকে সেরাটা বের করার চেষ্টা করেন। এমন মানুষ নিজেদের ভুল থেকে সবচেয়ে বেশি শেখেন। এ ধরনের মানুষের নৈতিকতার মান খুব উঁচু হয়।’



মন্তব্য চালু নেই