মেইন ম্যেনু

যে কারণে জন্মের পরে শিশুরা কেঁদে ওঠে!

জন্মের সময় প্রত্যেক শিশু কেঁদে ওঠে এমন বলা যায় না, কিন্তু কিছুক্ষণ পরেই তারা কেঁদে ওঠে, যে কান্নাতে শিশুটির মা হেসে ওঠে৷ এই মুহূর্তটাই বোধ হয় সবথেকে সুন্দর মুহূর্ত৷ কিন্তু শিশু জন্মের কিছুক্ষণ পরে কেন কেঁদে ওঠে তা হয়তো অনেকেই জানেন না।

বিভিন্ন গবেষণা অবশ্য বিভিন্ন মতামত তুলে ধরে৷ যেমন বলা হয়ে থাকে, শিশুটি মাতৃগর্ভে বেড়ে উঠতে থাকে৷ যেখানে কেউ তার ঘুমে ব্যাঘাত ঘটানোর চেষ্টা বা তাকে বিরক্ত করার চেষ্টা করে না৷ সেই পরিবেশে সে দীর্ঘদিন নিজেকে মানিয়ে গুছিয়ে নিতে থাকে৷ সেই শান্তাবস্থাই তার পছন্দের পরিবেশ হয়ে ওঠে৷ কিন্তু ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর হঠাৎই এক মুহূর্তে তার সবকিছু বদলে যায়, যা ওই টুকু একটা শিশুর পক্ষে মানিয়ে নেওয়া কঠিনতম একটি বিষয়৷

শুধু তাই নয়, ভেতরের পরিবেশে এবং বাইরের পরিবেশের মধ্যে পার্থক্য ভূমিষ্ঠ হওয়ার পরেই সে টের পায় শ্বাস-প্রশ্বাস নেওয়ার সময়৷ জানা যায়, জন্মের পর তার কান্নার ফলেই তার শ্বাস-প্রশ্বাস নেওয়ার ক্ষমতা, পৃথিবীর পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার ক্ষমতা আরও বেড়ে যায়৷

কিন্তু এর অন্যথা হলেই কিন্তু চিন্তা বেড়ে যায় অনেকক্ষেত্রেই৷ জন্মের পর শিশুরা না কাঁদলে মনে করা হয় তার শরীরে অক্সিজেন ছড়িয়ে পড়তে কোনও সমস্যা হচ্ছে৷ আর এমন হলে তা সত্যিই চিন্তার বিষয়৷ তাই দেখা যায়, শিশু ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর না কাঁদলে, তার পিছনে মেরে তাকে কাঁদানোর চেষ্টা করা হয়, যাতে প্রাথমিক কিছু সমস্যা থাকলে তা ঠিক হয়ে যায়৷

আবার অনেকক্ষেত্রে মনে করা হয়, ভূমিষ্ঠ হওয়ার পদ্ধতি শিশুর কাছে খুবই কষ্টকর হওয়ায় তারা কেঁদে ওঠে এবং তারপরে দীর্ঘক্ষণ ঘুমায়৷






মন্তব্য চালু নেই