মেইন ম্যেনু

যে ৬ অভ্যাস আপনাকে বুড়ো হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করবে

আমাদের বুড়িয়ে যাওয়ার মধ্যে জেনেটিক্সের ব্যপক প্রভাব। আর এই প্রভাব থাকলেও একটি বিষয় পরিস্কার যে, আমাদের কিছু ছোট ছোট সুন্দর অভ্যাস আমাদেরকে বুড়িয়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করতে পারে। দৈনন্দিন জীবনে শত ব্যস্ততার মাঝেও কিছু নিয়ম কানুনই পারে আমাদেরকে আরও তরুণ ও সজিব রাখতে।

১.পানি পান করুন বেশী করে
আমাদের মস্তিষ্কের ৭০% থেকে ৮০% টিস্যুই পানি দ্বারা পূর্ণ। আর যখন এই পানির অভাব হয় তখন আমরা অল্পতেই বিষণ্ণতায় আক্রান্ত হতে পারি। মনকে সতেজ ও ফুরফুরে রাখতে চাইলে প্রতিদিন প্রচুর পরিমানে পানি পান করতে হবে। এছাড়া মাংস পেশী সুগঠিত রাখতে পানির ভূমিকা অনেক।

২.পর্যাপ্ত ঘুমান
এটা নিশ্চিত যে, পর্যাপ্ত ঘুম আমাদেরকে করে তুলে সতেজ ও ক্লান্তিহীন। খিটখিটে মেজাজ দূর করতে ঘুমের বিকল্প আর কি আছে! নিদ্রাহীনতায় ভুগলে যেমন শারীরিক, মানসিক নানান রোগ বাসা বাধে তেমনি পর্যাপ্ত ঘুম গড়ে তুলে রোগ প্রতিরোধের দেয়াল। অধিক রাত জাগলে চোখের নিচে কালো দাগ পড়ে। যা অল্পবয়সীদেরকে সহজে বুড়িয়ে তোলে। তারুণ্যে ধরে রাখতে তাই পর্যাপ্ত ঘুম আবশ্যিক।
২০১০ সালের হেলথ ম্যগাজিনের একটি গবেষণায় (যুক্তরাষ্ট্রে) দেখা গেছে, ৫০-৭৯ বছর বয়সী নারীদের মৃত্যুর হার বেশীর কারণ অপর্যাপ্ত ঘুম নাহয় অতিরিক্ত ঘুম। তাই ঘুমাতে কমপক্ষে ৬ ঘন্টা।

৩.ছেড়ে দিন ধুমপান
তারুণ্য ধরে রাখতে হলে ধূমপান ছাড়তে হবে এখনই। সিগারেটে থাকা কার্বন মনোক্সাইড ত্বকে অক্সিজেনের ভারসাম্য নষ্ট করে। বিঘ্ন ঘটায় রক্ত চলাচলেও। এতে পরিবর্তন আসে ত্বকের রঙয়েও। তাই ত্বকের রঙ ঠিক রাখতে হলে ধূমপান কে না বলতে হবে। এছাড়া, ধুমপানের আরও সব মারাত্মক ক্ষতির কথা আমরা সবাই কম বেশী জানি।

৪.প্রখর উত্তাপ থেকে দূরে থাকুন
শরীরের প্রাকৃতিক রঙ ঠিক রাখতে হলে প্রচন্ড তাপের ধারে কাছে না যাওয়াই উত্তম নেহাত জরুরী না হলে। যেতে হলে ব্যবহার করতে হবে সানস্ক্রিন, সানগ্লাস। এতে ত্বক পোড়া থেকে রেহাই পাওয়া যাবে।

৫.শাকসবজি খেতে হবে
অতিরিক্তি চর্বি যুক্ত খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। গরুর লাল গোসত শরীরের রক্তচাপকে বাড়িয়ে দেয়। সজিব ও সতেজ থাকতে হলে সবুজ শাকসবজি রাখতে হবে প্রতিদিনের খাবার মেনুতে।

৬. গ্রিন টি
গ্রিন টি শরীরের ক্লান্তি দূর করে৷ জাপানের একটি গবেষণায় দেখা গেছে, যারা দিনে দুই কাপের বেশি গ্রীন টি পান করেন তারা মানসিকভাবে অনেক বেশি সুস্থ। গ্রীন টি ইমিউন সিস্টেমকে আরো শক্তিশালী করে৷






মন্তব্য চালু নেই