মেইন ম্যেনু

রোহিঙ্গাদের জন্য কক্সবাজারে হাসপাতাল করবে মালয়েশিয়া

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতনের শিকার হয়ে দেশটির রাখাইন রাজ্য থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের জন্য কক্সবাজারে একটি হাসপাতাল করে দেবে মালয়েশিয়া সরকার।

রোববার সন্ধ্যায় ঢাকার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক এমনটাই জানিয়েছেন মালয়েশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী আহমেদ জাহিদ হামিদি।

বৈঠক শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী সাংবাদিকদের বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে মালয়েশিয়া সরকার আমাদের সাথে রয়েছে। মালয়েশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী আগামী কাল সকালে কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শেন যাচ্ছেন।

তিনি আরো বলেন, মালয়েশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে একটি ফিল্ড হাসপাতাল করে দেবে। সেখানে প্রায় তিন লাখ রোহিঙ্গা ফ্রি চিকিৎসা নিতে পারবে। বেশ বড় একটি হাসপাতাল। এটা খুব তাড়াতাড়ি প্রস্তুত করা হবে।

এসময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মালয়েশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী আহমেদ জাহিদ হামিদি বলেন, রোহিঙ্গা একটি আন্তর্জাতিক ইস্যু। এই বিষয়টি নিয়ে আমরা আলোচনা করছি। রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর বিষয়েও বাংলাদেশ সরকারের সাথে আলোচনা হয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী ও মালয়েশিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী আহমাদ জাহিদ নিজ নিজ দেশের পক্ষে বৈঠকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, রোহিঙ্গ ইস্যু ছাড়াও বাংলাদেশ ও মালয়েশিয়ার মধ্যে শ্রমশক্তি রফতানির বিষয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে।

জানা গেছে, সোমবার সকালে তিনি কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে যাবেন। পরিদর্শন শেষে কক্সবাজারে থেকেই তিনি বাংলাদেশ ছেড়ে যাবেন।

দুই দিনের সরকারি সফরে রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় তিনি ঢাকায় পৌছায়।






মন্তব্য চালু নেই