মেইন ম্যেনু

লক্ষ্মীপুরে পায়ুপথে ‘বাতাস ঢুকিয়ে’ শিশু শ্রমিককে হত্যাচেষ্টা

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার মজু চৌধুরীর হাট এলাকায় পায়ুপথে বাতাস ঢুকিয়ে এক শিশুশ্রমিককে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আজ রাত ৯টার দিকে প্রধান সন্দেহভাজন রিয়াজকে আটক করেছে পুলিশ।

শিশুটির নাম মিলন (১০)। সে লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার চরমার্টিন গ্রামের রহিম বাদশার ছেলে। তাকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

২০১৫ সালের ৩ আগস্ট খুলনায় বাতাস ঢুকিয়ে শিশু রাকিবকে হত্যা করা হয়। এর পরের বছর ২০১৬ সালের ২৪ জুলাই নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে একই ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী ওই শিশুর নাম সাগর বর্মণ। এরপর ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে বাতাস ঢুকিয়ে হত্যাচেষ্টা চলে।

হাসপাতাল ও পুলিশ সূত্র জানায়, উপজেলার মজু চৌধুরীর হাটে সেলিমের খাবারের হোটেলে মিলন কাজ করত। ঘটনার সময় সে হোটেলের পাশে রিয়াজের পরিবহনের চাকা মেরামতের গ্যারেজের সামনে দুষ্টামি করে। এ সময় রিয়াজ ক্ষিপ্ত হয়ে মিলনকে ধরে নিয়ে চড়-থাপ্পড় দেন। একপর্যায়ে অজ্ঞাত এক চালকের সহকারীর সহযোগিতায় শিশুটির পায়ুপথে পাম্পের (রিকশা ও সাইকেলের হাওয়ার যন্ত্র) বাতাস ঢুকিয়ে হত্যার চেষ্টা চালান রিয়াজ। এতে শিশুটি অসুস্থ হয়ে বমি করে। খবর পেয়ে হোটেল মালিকের খালাতো ভাই আজাদ তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) আনোয়ার হোসেন বলেন, পায়ুপথে হাওয়া ঢোকানো শিশুটিকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তবে তাকে আশঙ্কামুক্ত বলা যাচ্ছে না। শিশুটিকে ঢাকায় পাঠানো হচ্ছে।

লক্ষ্মীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ লোকমান হোসেন বলেন, ঘটনাটি শুনে হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনার পরই অভিযান চালিয়ে রিয়াজকে আটক করা হয়।



মন্তব্য চালু নেই