মেইন ম্যেনু

সরকার ওয়াদা ভঙ্গ করেছে : বি. চৌধুরী

বিকল্পধারা ও যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী সরকারের বিরুদ্ধে ‘ওয়াদা ভঙ্গের’ অভিযোগ এনেছেন।

বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ অভিযোগ করেন।

বি. চৌধুরী বলেন, ‘যুক্তফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচন ঘিরে লেভেলে প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিতে দৃড়ভাবে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু, বৃহস্পতিবার সাতক্ষীরায় একটি সমাবেশে যোগ দিতে যুক্তফ্রন্টের নেতারা হেলিকপ্টার ব্যবহার করতে চাইলে তা উড়তে দেয়া হয়নি। এটি লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড গঠনের প্রতিশ্রিুতির বরখেলাপ।’

তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করি, এই ওয়াদা ভঙ্গ সরকারের সদিচ্ছা বহন করে না। কোনোভাবেই ভবিষ্যতে এ ধরনের আচরণ গ্রহণযোগ্য হবে না।’

হুমকি দিয়ে সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘এ ধরনের ঘটনা আবারও হলে আমরা নিশ্চিতভাবে বিকল্প পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হব।’

তিনি সাতক্ষীরার জনসভায় যাওয়ার জন্য যুক্তফ্রন্ট নেতৃবৃন্দ ও মিডিয়াকর্মীদের জন্য নির্ধারিত হেলিকপ্টার উড়তে না দেয়ার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানান।

বৃহস্পতিবার সাতক্ষীরায় যুক্তফ্রন্টের উদ্যোগে জনসভা করার সব প্রস্তুতি শেষ করা হয়। বিকল্পধারার প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাতক্ষীরা-৪ আসন থেকে সম্ভাব্য প্রার্থী গোলাম রেজা এই জনসভার আয়োজন করেন।

প্রসঙ্গত, এই আসনেই গতকাল বুধবার নিজে প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

বি. চৌধুরী বলেন, ‘সমাবেশে যোগ দিতে বৃহস্পতিবার সকালে আমাদের নেতৃবৃন্দ ও সংবাদকর্মীদের বহনকারী হেলিকপ্টার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে উড়তে দেয়া হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘যুক্তফ্রন্টের এই জনসভা নিয়ে সাতক্ষীরার মানুষের বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা ছিল এবং তারা জনসভা সফলের জন্য এগিয়ে এসেছিলেন। যুক্তফ্রন্টের উদ্যোগে ঢাকার বাইরে এটাই ছিল বিশাল গণসংযোগ এবং প্রথম জনসভা।’

সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘কয়েকদিন আগে যুক্তফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আসন্ন নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড প্রতিষ্ঠার স্বার্থে আমাদের দৃঢ়ভাবে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন— দেশের যেকোনো জায়গায় বিরোধী দল হিসেবে আমরা গণসংযোগ বা সভা-সমাবেশ করতে পারব।’

তিনি বলেন, ‘দুঃখের বিষয়, আমাদের হেলিকপ্টারযোগ নেতাদের সাতক্ষীরার জনসভায় যোগদানে বাধা দেয়া হয়েছে। হেলিকপ্টার উড়তে দেয়া হয়নি। এজন্য আমরা জনসভায় যোগ দিতে পারিনি।’

যুক্তফ্রন্ট চেয়ারম্যান বলেন, ‘এটা নিশ্চিত প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে সরকার এই জনসভা বন্ধ করার ব্যবস্থা করেছে। আমরা সরকারের এই গণতন্ত্রবিরোধী পদক্ষেপের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এটা লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড গঠনের প্রতিশ্রিুতির পরিষ্কার বরখেলাপ।’



মন্তব্য চালু নেই