মেইন ম্যেনু

সিইসিসহ কমিশনারদের নিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জের রিট খারিজ

প্রধান নির্বাচন কমিশনার এবং চার কমিশনারের নিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা রিট উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এ-সংক্রান্ত রিটের শুনানিতে সোমবার হাইকোর্টের বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ইউসুফ আলী।

এর আগে গত ২৬ নভেম্বর প্রধান নির্বাচন কমিশনার এবং চার কমিশনারের নিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট আবেদন দায়ের করা হয়। রিট আবেদনে নির্বাচন কমিশনারদের নিয়োগ-সংক্রান্ত গেজেট বাতিল চাওয়া হয়।

আইনজীবী দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই আবেদনটি দাখিল করেন। রিটে প্রধান নির্বাচন কমিশনার, চার নির্বাচন কমিশনার, আইন সচিব, নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের সচিবকে বিবাদী করা হয়।

পরে রিটকারীর আইনজীবী ইউসুফ আলী জানান, সংবিধানের ১১৮(১) অনুচ্ছেদ অনুসারে আইন প্রণয়ন করে এর বিধান সাপেক্ষে সিইসিসহ চারজন নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ দিতে হবে। অথচ এখনও কোনো আইন ও বিধান হয়নি। এসব বাদেই সিইসিসহ অপর নির্বাচন কমিশনারদের নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘সংবিধানের ১১৮(৪) অনুচ্ছেদে বলা আছে, নির্বাচন কমিশন দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে স্বাধীন থাকবে এবং এই সংবিধান ও আইনের অধীনে হবে। স্বাধীন দায়িত্ব পালনের পূর্বাভিজ্ঞতা ব্যতিরেকে সিইসি হিসেবে কে এম নুরুল হুদাকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এসব যুক্তিতে রিটটি করা হয়।’

সংবিধানের ১১৮(১) অনুচ্ছেদের শর্ত পূরণ করে সিইসিসহ অন্য কমিশনারদের নিয়োগে বিবাদীদের নিস্ক্রিয়তা কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না-এ মর্মে রুলও চাওয়া হয়েছিল রিটে।



মন্তব্য চালু নেই