মেইন ম্যেনু

‘সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আ.লীগ ৩০টির বেশি আসন পাবে না’

সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ ৩০ টির বেশি আসন পাবে না বলে দাবি করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের পায়ের নিচে মাটি নেই। তারা গণবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। জনগণ অপেক্ষা করছে। ভোটের সুযোগ পেলে দাঁত ভাঙা জবাব দেবে।’

বুধবার দুপুরে রাজধানীর ঢাকেশ্বরী মন্দিরে এক আলোচনায় বিএনপি নেতা এ কথা বলেন। বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান কল্যাণ ফ্রন্টের উদ্যোগে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৩৬তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে এ আলোচনার আয়োজন করা হয়।

২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরের নির্বাচনে জিতে টানা আট বছর ধরে ক্ষমতায় আওয়ামী লীগ। আগামী সংসদ নির্বাচনেও জিতে আওয়ামী লীগ হ্যাটট্রিক জয় উদযাপন করবে বলে দাবি করেছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এর প্রতিক্রিয়ায় বিএনপি মহাসচিব এই কথা বলেন।

নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবি পূরণ না হওয়ায় ২০১৪ সালের দশম সংসদ নির্বাচন বর্জন করে বিএনপি ও তার জোটবদ্ধ এবং সমমনা দলগুলো। একদরফা নির্বাচনে সহজেই জিতে আওয়ামী লীগ টানা দ্বিতীয় দফা ক্ষমতায় আসে। বিএনপির দাবি এখনও পূরণ হয়নি। আর বিএনপি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বদলে এবার দাবি করছে সহায়ক সরকারের।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এবার নির্বাচন হবে সহায়ক সরকারের অধীনে এবং সব দলের অংশগ্রহণের মাধ্যমে।’ তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ভাল করে জানে, সহায়ক সরকার কিংবা নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে ৩০টি আসনের বেশি পাবে না। নির্বাচনে জিততে পারবে না। তাই একেক সময় একেক ধরনের কথা বলে যাচ্ছে।’

ফখরুল বলেন, ‘দেশে এখন আইনের শাসন, গণতন্ত্র ও মানবাধিকার নেই। সংখ্যালঘুরা প্রতিনিয়ত নির্যাতিত হচ্ছেন।’

আলোচনায় সভাপতিত্ব করেন আয়োজক সংগঠনের আহ্বায়ক গৌতম চক্রবর্তী।






মন্তব্য চালু নেই