মেইন ম্যেনু

সৌদি আরবে বৈঠকে যোগ দেবে না তালেবান

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পরিকল্পিত শান্তি আলোচনায় যোগ দেবে না আফগানিস্তানের তালেবান। চলতি মাসে এ বৈঠক সৌদি আরবে হওয়ার কথা ছিল। এদিকে এ আলোচনা কাতারে সরিয়ে নেয়ার ইচ্ছা জানিয়েছে তালেবান।

শান্তি আলোচনায় আফগান সরকারকে অন্তর্ভুক্ত করার প্রচেষ্টা করছে সৌদি। সৌদির এ প্রয়াসকে ঠেকানো জন্য বৈঠকের স্থান পরিবর্তনের ইচ্ছা ব্যক্ত করেছে তালেবান। তালেবানের এক পদস্থ কর্মকর্তা এ কথা জানিয়েছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক পদস্থ তালেবান কর্মকর্তা বলেন, গত মাসে আবুধাবিতে অনুষ্ঠিত শান্তি প্রক্রিয়া শেষ হয়নি। প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখার জন্য রিয়াদে তালেবানের সঙ্গে মার্কিন কর্মকর্তাদের বৈঠকের কথা ছিল।

কিন্তু আফগান সরকারে প্রতিনিধিদের সঙ্গে তালেবানকে বৈঠক করার জন্য সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত বা ইউএইর নেতারা জোর দিচ্ছেন বলে জানান তিনি।

তালেবানের পক্ষে এখন কাবুলের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করা সম্ভব নয় উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, তাই সৌদি আরবে অনুষ্ঠেয় বৈঠক বাতিল করা হলো।

কাতারে তালেবানের রাজনৈতিক সদর দফতরে বৈঠক হতে পারে বলেও জানান তিনি।

এদিকে, তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ সৌদি আরবে বৈঠক বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে ইরানের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্বাস আরাগসি আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে পররাষ্ট্রবিষয়ক মন্ত্রণালয়ে ইদ্রিস জামানের সঙ্গে দেখা করেন।

পরে আগারসি ও তার প্রতিনিধিদল আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ গণির সঙ্গে প্রেসিডেন্টের বাসভবনে দেখা করেন।

এ সময় দু’দেশের পারস্পরিক সম্পর্ক নিয়ে আলোচনা করা হয়। আফগানিস্তানের শান্তি ফিরিয়ে আনতে বিভিন্ন বিষয়ে দু’দেশের সঙ্গে মতবিনিময় হয়। আলোচনায় কীভাবে সাবাহার পোর্ট ব্যবহার উপযোগী করা যায়, সে বিষয়টিও প্রাধান্য পায়।

ইরানি উপমন্ত্রী এ সময় প্রেসিডেন্ট গণির সঙ্গে তালেবানের বিবৃতি নিয়ে আলোচনা করেন।

চলতি সপ্তাহের আগে ইরানের সঙ্গে তালেবান প্রতিনিধি বৈঠক করে। ওই সময় আফগানিস্তানে কীভাবে শান্তি ফিরিয়ে আনা যায়, এ বিষয়টি প্রাধান্য পায়।



মন্তব্য চালু নেই