মেইন ম্যেনু

সৌরভ গাঙ্গুলীর সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী

সৌরভ গাঙ্গুলী। ভারতের সফল অধিনায়কদের একজন। ক্যারিয়ার জুড়ে ক্রিকেট, ব্যক্তিগত জীবন, কোচের সঙ্গে মতের অমিল নিয়ে সবসময়ই আলোচনায় ছিলেন গাঙ্গুলী। একজন দক্ষিণী অভিনেত্রীর সঙ্গে তার সম্পর্ক নিয়েও কম জল ঘোলা হয়নি।

তবে বছরের পর বছর ধরে ব্যাপারটাতে শুধুই ধোঁয়াশা জমা হয়েছে। দুপক্ষের কেউই কখনও এই নিয়ে মুখ খোলেননি। ফলে রহস্য জমা হয়েছে আরও বেশি। সাধারণ ক্রিকেট প্রেমীদের কৌতুহলের শেষ নেই। প্রশ্ন একটাই, সত্যি কি সৌরভ ও অভিনেত্রী নাগমার মধ্যে কোনও সম্পর্ক ছিল?

এর আগে কোথাও কখনও পুরনো সম্পর্ক নিয়ে মুখ খোলেননি সৌরভ বা নাগমা কেউই। এত বছর পর শেষ পর্যন্ত নিরবতা ভাঙলেন দক্ষিণী অভিনেত্রী। এক সাক্ষাত্কারে ভারতের সাবেক অধিনায়কের সঙ্গে নিজের পুরনো সম্পর্কের প্রসঙ্গ নিয়ে অনেক কথা বললেন তিনি। সে সময় ভারতীয় দলের দাপুটে অধিনায়ক ছিলেন সৌরভ। অন্যদিকে, দক্ষিণী সিনেমায় ক্রমশ নিজের অস্তিত্বের জানান দিচ্ছেন নাগমা। অর্থাত্ দুজনেই ক্যারিয়ারের মধ্যগগণে। ঠিক সেই সময় সম্পর্কের জটিলতায় জড়াতে চাননি কেউই। সাক্ষাত্কারে অন্তত এমনই ইঙ্গিত দিলেন নাগমা।

নাগমা বলছিলেন, অনেকে তো অনেক কথা বলেছে। তবে যতক্ষণ পর্যন্ত একজন আরেকজনের জীবনে পরস্পরের অস্তিত্বের কথা অস্বীকার না করছে ততক্ষণ যে কেউ যা খুশি বলতেই পারে। তা হলে তাদের সম্পর্কছেদের আসল কারণটা কী? নাগমার উত্তর, সব কিছুর ঊর্ধ্বে ক্যারিয়ারের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা ছিল। তাই কিছু ব্যাপার থেকে সরে আসার প্রয়োজন হয়ে দাঁড়িয়েছিল।

একসঙ্গে থাকার থেকে, একটা আবেগের সফরে নামার আগে অনেক কিছুর তুল্যমূল্য বিচার করার প্রয়োজন ছিল। বড় স্বার্থের জন্য অনেক সময় ছোট ছোট ব্যাপার জলাঞ্জলি দিতে হয়। একটা খেলা শুরু হলে মনে রাখা উচিত সেটা আসলে কিন্তু একটা খেলাই। কিছু মানুষ অনেক সময়ই সেটাকে টেনে টেনে অনেকদূর নিয়ে যায়।

সাক্ষাত্কারের মাঝে নাগমা এটাও বুঝিয়ে দেন, তিনি বা তাঁর প্রাক্তন কেউই সম্পর্কটাকে তিক্ততার জায়গায় নিয়ে গিয়ে শেষ করেননি। বরং এখনও পর্যন্ত দুজনের মনে পরস্পরের জন্য একইরকম সম্মান রয়েছে।



মন্তব্য চালু নেই