মেইন ম্যেনু

স্বামীর কাজটি করে যাচ্ছেন মাশরাফির স্ত্রী

ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে আয়ারল্যান্ডে মাশরাফি বিন মোর্তুজা। ক্রিকেটের বাইরেও আরও একটি পরিচয় আছে টাইগার অধিনায়ক মাশরাফির। সেটি হলো তিনি একজন সংসদ সদস্য। একজন সাংসদ হিসেবে নিজ এলাকায় অনেক কাজ থাকে তার। কিন্তু তিনি নেই। তাই বলে কি তার কাজ বন্ধ হয়ে থাকবে? না, সেটি হতে দেননি মাশরাফি পত্নি সুমনা হক সুমি। নড়াইলে ব্যস্ত সময় পার করছেন তিনি।

সুমি একটি ফ্লাইটে যশোর এসে পৌঁছান। সেখান থেকে বাসায় গিয়েই চলে আসেন জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে। সেখানে জেলা মহিলা যুবলীগের নেত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেন। পরে নড়াইলের লোহাগড়ায় দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত ওসমান মোল্যার স্ত্রী রুবিয়া বেগমকে চিকিৎসা বাবদ পঞ্চাশ হাজার টাকা প্রদান করেন।

এরপর জয়পুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর খাদিজাতুল কোবরা মহিলা এতিম খানা ও মাদরাসায় ইফতার মাহফিলে যোগদান করেন। পরে শহরের সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের বিদ্যালয় ‘আঁধারের জোনাকি’তে বিভিন্ন প্রকার শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেন।

এ সময় আওয়ামী লীগ নেতা সুমনা হক সুমির চাচা ফয়জুল হক রোম, আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য সৌমেন চন্দ্র বসু, গোবিন্দপুর খাদিজাতুল কোবরা মহিলা এতিম খানা ও মাদরাসার সুপার হাফিজুর রহমান, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রাবেয়া ইউসুফ, সাধারণ সম্পাদক ইসমত আরা, জেলা পরিষদের কাউন্সিলর রওশন আরা লিলি, লাহুড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দাউদ হোসেন, জয়পুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আক্তার হোসেন, জেলা যুব মহিলালীগের আহ্বায়ক পলি রহমান, যুগ্ম-আহ্বায়ক ও সুমির মেজ বোন সঞ্জিবা হক রিপা, সদস্য ও সুমির বড় বোন সঞ্চিতা হক রিক্তা, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নিলয় রায় বাঁধন, লোহাগড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মুন্সী জোসেফ হোসেনসহ দলীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।



মন্তব্য চালু নেই